食のオンラインマーケット RELEASE COMMERCE
食のオンラインマーケット RELEASE COMMERCE
公開中 1 to 96 of 163965 写真.
পৌরসভা গেট বেনাপোল যশোর খুবই অসাধারণ কারণেই দুই লাইনের এক লাইনে আসবে কে জানে কত সুন্দর রং করার ডিজাইন করা মনে হয় শিল্পীর নিখুঁত হাতে তৈরি করা বেনাপোল যশোর এর মাঝখানের পৌরসভার একটি নিদর্শন একটি দাঁড়িয়েছে এটা পর্যটকদের জন্য একটি দর্শনীয় স্থান এখানে ঘুরতে আসেন এই গেটের ছবি অবশ্যই একবার না একবার তুলে দেন খুবই অসাধারণ একটি ইন্ডিয়া বর্ডার মাত্র 15 কিলোমিটার খুবই অসাধারণ এই জায়গাটি তাই এই বেনাপোল থেকে ইন্ডিয়া বর্ডার মাত্র 15 কিলোমিটার যশোর থেকে প্রায় 25 কিলোমিটার একটি নিদর্শন এই ছবিটা আমার কাছে অসাধারণ একটি প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের লীলাভূমি যশোর জেলার বেনাপোলে মাঝখানে অবশ্যই তোমাদের ভালো লাগলে লাইক বা কমেন্ট করবেন আমার চ্যানেলটা সাবস্ক্রাইব করুন
হাতে অল্প সময় নিয়ে পরিবারের সবাইকে নিয়ে অল্প খরচে অবকাশ যাপন করে আসতে পারেন রাজধানী ঢাকার কাছেই নরসিংদী জেলায় ৩৭ একর জায়গার উপর গড়ে উঠা বিশ্বমানের থিম পার্ক ড্রিম হলিডে পার্ক থেকে। নরসিংদী সদর উপজেলার পাঁচদোনা চৈতাব এলাকায় ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের পাশে এই পার্কটি অবস্থিত। ছোট-বড় সবার জন্যই রয়েছে আলাদা সব রাইড। ঢাকা থেকে মাত্র ঘণ্টা খানেকের দূরত্বে বলে ইতিমধ্যেই এ পার্কটি জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে।

 ৬০ একর জমির ওপর নির্মিত এ পার্কে রয়েছে নাগেট ক্যাসেল, এয়ার বাইসাইকেল, অস্ট্রেলিয়ার বিখ্যাত ইমু পাখি, মায়াবি স্পট, কৃত্রিম অভয়ারণ্য, ডুপ্লেক্স কটেজ, পার্কে শিশু-কিশোরদের জন্য একাধিক রাইডস, সুবিশাল লেক, হংসরাজ প্যাডেল ও জেট ফাইটার বোট, মনোমুগ্ধকর প্রাকৃতিক পরিবেশবেষ্টিত নয়নাভিরাম ক্যানেল, রকিং হর্স, ক্লোজসার্কিট ক্যামেরা ও সরকার প্রদত্ত নিরাপত্তা কর্মীর তত্ত্বাবধানে সুশৃঙ্খল ও নিরাপদ পরিবেশ। রয়েছে বিশাল গাড়ি পার্কিংয়ের জায়গা, নিজস্ব কটেজ ও সুপ্রশস্ত বাংলো।ড্রিম হলিডে পার্কে আসা দর্শনাথীদের কথা ভেবে এখানে রেস্টুরেন্ট নির্মাণ করা হয়েছে। যেখানে চাইনিজ, বাংলা খাবারসহ চটপটি, ফুচকা ও আইসক্রিম পাওয়া যায়। এছাড়াও ড্রিম হলিডে পার্কে আছে নজরকারা জামদানির সংগ্রহ এবং বেড শিট, থ্রি পিস ও অন্যান্য জিনিসপত্র।বাংলাদেশের ভিতরে সবথেকে সুন্দরতম একটা পার্ক এর চিত্র আমি আপনাদের সামনে উপস্থাপন করলাম আশা করি এটা দেখে অনেক অনেক ভালো লাগে আমার দেখা সবথেকে সুন্দর একটা পার্ক আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম আমি মরে যায় এবং হাজার হাজার মানুষের ভেতরে প্রতিদিন আনন্দ বিনোদনের জন্যঅনেক অনেক ভালো লাগবে নরসিংদী জেলার পার্ক দৃশ্য আপনাদের সামনে উপস্থাপন করলাম
শীতের সকালে কুয়াশায় ভেজা রাস্তার গাছে কুয়াশাভেজা এমন সময় একজন নারী যারা খেজুর গাছ কাটেন সকালবেলা ফরজের আজান এরপরে ছুটে চলেন তাদেরকে জোর গাছের উদ্দেশ্যে খেজুরের রস পারার জন্য তাই আমি একজন কৃষক এই আমাদের সাতক্ষীরা জেলা আশাশুনি থানার ইউনিয়নের একজন কৃষক খুবই অসাধারণ এই কৃষক ইউনিয়নের একটি গাছ কেটে রস নিয়ে যাওয়ার জন্য ব্যস্ত হয়েছেন দেখতে পাচ্ছেন অনেকগুলো খেজুর গাছ থেকে অনেকগুলো ভার্নিয়ের কুয়াশায় ভেজা সকাল বেলা বেরিয়েছেন তার নিজের গন্তব্যে বাড়ি ফেরার পথে খুবই অসাধারণ তাই বন্ধুরা নিশ্চয়ই তোমাদের এই রাস্তার খেজুর গাছ আর সকালে কুয়াশার প্রাকৃতিক সৌন্দর্য চোখে পড়ার মতো আমার কাছে অসাধারণ একটা ছবি তাই তোমাদের যদি ছবিটা ভালো লাগে অবশ্যই লাইক বা কমেন্ট করবা আমার এই চ্যানেলটা সার্চ করবা
চিন্তা মমতা মন্দির বিক্রমপুর বাংলাদেশ খুবই অসাধারণ এই যে মন্দিরের এত সুন্দর ডিজাইন করা একটি কারো কাছে কতই না সুন্দর এত সুন্দর রং করা উচিত ঠিক করছে রুদ্র তাপে তাই এই মন্দিরে হিন্দু ধর্মের প্রতি বছর 12 থেকে 13 পূজা হয় এই মন্দিরের পূজক খুবই আনন্দ করে মন্দিরে এই মন্দিরের পুরোহিত সকালবেলা পূজা দিয়ে থাকেন খুবই অসাধারণ এই বিল্ডিং তার শারীরিক সৌন্দর্য চোখে পড়ার মতো বিক্রমপুরের এই মন্দিরটা একটি দর্শনীয় মন্দির এখানে যারা বেড়াতে আসেন পর্যটকরা ঘুরতে আসেন এই মন্দিরের অবশ্যই দেখার মত একটি মন্দিরের ছবিটা অসাধারণ একটা ছবি নিশ্চয়ই তোমাদের পছন্দ হবে পছন্দ হলে লাইক বা কমেন্ট করবেন আমার চ্যানেলটা সাবস্ক্রাইব করবেন
শেখ রাসেল শিশু পার্ক গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ার শিশু ও পরিবারসহ ঘুরে বেড়ানোর জন্য একটি জনপ্রিয় স্থান। পার্কের কাছেই মধুমতী নদী। চমৎকার পরিবেশে ফুলে ফুলে সাজানো পার্কটি সব বয়সী মানুষকে মুগ্ধ করবে। প্রতিদিনই শিশু-কিশোর-তরুণ-তরুনীসহ সব মানুষের পদচারনায় মুখরিত হয়ে উঠে শেখ রাশেল শিশু পার্ক।
সাধারণত সরকারি ছুটির দিন শুক্র ও শনিবার এই দুই দিন মানুষের উপচেপড়া ভিড় থাকে পার্কটিতে। প্রতিদিনই দেশের বিভিন্ন জেলা-উপজেলা থেকে টুঙ্গিপাড়ায় জাতির জনকের সমাধি কিংবা সারাসরি শেখ রাসেল শিশু পার্কটি দেখতে আসা মানুষের সমাগম থাকে চোখে পড়ার মতো। সময় সব বয়সের মানুষের পদচারনায় পার্কটি মিলন মেলায় পরিনত হয়ে উঠে। গোপালগঞ্জ ছাড়াও পার্শ্ববতী খুলনা, বাগেরহাট, যশোর, নড়াইল, চিতলমারী, পিরোজপুর, চৌগাছা, সাতক্ষীরা ও মাগুরাসহ বেশ কয়েক জেলা উপজেলা থেকে দর্শনার্থিরা ভিড় করেন টুঙ্গিপাড়া শেখ রাসেল শিশু পার্কটি ।শেখ রাসেল শিশু পার্কের প্রবেশমূল্য ১০ টাকা মাত্র। সকাল ৯.০০ টা থেকে বিকাল ৫.০০ টা পর্যন্ত সপ্তাহের ৭ দিনই খোলা থাকে।এখানে যাওয়ার সাধারণ পার্কের চিত্র আপনারা দেখতে পাচ্ছেন গোপালগঞ্জ জেলায় শেখ রাসেল স্মৃতি একটা তৈরি করা হয়েছে এটা শেখ রাসেল শিশু পার্ক নামে পরিচিত বাংলাদেশের ভিতরে সবথেকে জনপ্রিয় পার্কের দৃশ্য আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম কারণ শেখ রাসেল ছিল আমাদের বাংলাদেশের একজন সর্বশ্রেষ্ঠ শিশু যার কথা ইতিহাসের বুকে এখনো নাম লেখা রয়েছে এবং তার ছবি সব মানুষের কাছে অমর হয়ে আছে সারা জীবন থাকবে তার নামে পার্ক টা তৈরি করা হয়েছে তার একটা দৃশ্য আপনারা এখানে দেখতে পাচ্ছেন হাজার হাজার মানুষ প্রতিদিন এই পার্কে আনন্দ ভ্রমণ করার জন্য যায় অনেক সুন্দর একটা স্থান আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম গোপালগঞ্জ জেলায় অবস্থিত
বেস্ট এলেক্ট্রনিক এর বিল্ডিং তিন তালা বিল্ডিং টা দেখছেন বেস্ট ইলেকট্রনিক্স এর দোকান খুবই অসাধারণ সাতক্ষীরা জেলার সবচেয়ে বড় দোকান এখানে ইলেকট্রিকের যত প্রকার আছে সব গুলো পাওয়া যায় খুবই অসাধারণ এই বেস্ট ইলেকট্রনিক্স তাই বন্ধুরা এই প্রাকৃতিক সৌন্দর্য ও মনোরম পরিবেশ সামনের দৃশ্য গাড়ি রাখার জায়গা সব মিলিয়ে অসাধারণ একটি জায়গা সাতক্ষীরা নিউমার্কেট থেকে একটু সামনে বেস্ট ইলেকট্রনিক্স এর দোকান বিল্ডিং সব মিলিয়ে অসাধারণ একটি সুন্দর ছবি অসাধারন একটি ফটোগ্রাফিক নিশ্চয়ই তোমাদের এই ছবিটা পছন্দ হলে লাইক বা কমেন্ট করবেন আমার এই চ্যানেলটা সাবস্ক্রাইব