写真

এই পিকচারটির মধ্যে দেখা যাচ্ছে সুন্দর একটি মুদি বাজারের মুদি খানার দোকান এবং এই দোকানটি অবস্থিত সাতক্ষীরা সুলতানপুর বড় বাজার সংলগ্ন এবং সেখানে দেখা যাচ্ছে সুন্দর একটি রাস্তা এবং রাস্তার ডান পাশে অনেক গুলো দোকান দেখা যাচ্ছে এবং এখানে সব গুলো দোকান মুদি খানার দোকান এবং তার মধ্যে একটি দোকানে হালখাতার দৃশ্য দেখা যাচ্ছে এবং এই দোকানের ভিতরে অনেক গুলো মুদি মাল ও বেকারির মাল ইত্যাদি বিভিন্ন ধরনের মাল দেখা যাচ্ছে এবং দোকানের সামনে ডান পাশে অনেক গুলো বিভিন্ন ধরনের পানি যেমন ক্লেমন, স্পিরিট, এবং ফলের তৈরী জুস সাজানো দেখা যাচ্ছে এবং এই দোকানটি দুই জন ভাগে মিলেমিশে পরিচালনা করে এবং এই দোকানটিতে 6 জন কর্মচারী এবং দোকানের সামনে কয়েকজন লোক দাঁড়িয়ে আছে হালখাতা করার জন্য এবং দোকানের সামনে দিয়ে যে রাস্তাটি চলে গিয়েছে এবং সেই রাস্তা দিয়ে অনেক গুলো মানুষ চলাচল করছে
আমি আপনাদের মাঝে আমার বোনের মেয়ের শুভ জন্ম দিনের পিকচার তুলে পোষ্ট করলাম এবং এই জন্ম দিনটি সবাই খুব আনন্দ করে পালন করে এবং এই জন্ম দিন উপলক্ষে অনেক আত্মীয় সজনদের দাওয়াত করা হয়েছে এবং আমার বোনের মেয়ে সহ তার বাবা মা আত্মীয় সজন সবাই মিলে আনন্দ করছে এবং একটি ঘরের ভিতরে সবাই রয়েছে এবং সেখানে দেখা যাচ্ছে সুন্দর একটি টেবিল এবং টেবিলের উপর একটি থালার উপর অনেক গুলো মিষ্টি এবং তার পাশে ছোট একটি কেক এবং কেক খেতে ভারি সুন্দর লাগে সাথে মিষ্টি ও এবং সেখানে আমার বোনের মেয়ে একটি ছুড়ি নিয়ে কেক কাটাতে যাচ্ছে এবং তার চারিদিকে সবাই তাকে ঘিরে দাঁড়িয়ে আছে এবং তাকে স্বাগতম জানাচ্ছে
আমি যে আপনাদের মাঝে নতুন একটি পিকচার তুলে পোষ্ট করলাম এই পিকচারটি ধুলিহর ব্রক্ষরাজপুর বাজারের একটি সুন্দর প্রাকৃতিক দৃশ্য এবং এই পিকচারটি চার রাস্তার মোড় থেকে তোলা হয়েছে এবং এই মোড়টির নাম  ধুলিহর উমড়া পাড়া মোড় এবং এই মোড় দিয়ে যে সুন্দর রাস্তা চলে গিয়েছে এই রাস্তাটি একটি গ্রামের ভিতরে চলে গিয়েছে এবং এই গ্রামের ভিতরে একটি গ্রামের নাম মেল্লক পাড়া এবং এই গ্রামটিতে মাহফিল হওয়ার জন্য এই পিকচারটিতে যে রাস্তা দেখা যাচ্ছে এবং সেখানে একটি মাহফিলের জন্য একটি গেট করা দেখা যাচ্ছে এবং এই গেটটি সাদা ও লাল কাপড়ের তৈরী এবং এই যে রোডটি দেখা যাচ্ছে এই রোডটি একটি মেইন রোড থেকে পশ্চিম দিকে চলে গিয়েছে এবং এই মেইন রোডটি সাতক্ষীরা থেকে আশাশুনি রোডের সঙ্গে মিশে গিয়েছে এবং এই গেটটির দুই পাশ দিয়ে অনেক গুলো দোকান চলে গিয়েছে এবং গেটের ভিতর দিয়ে অনেক গুলো মানুষ বাই সাইকেল, মটরসাইকেল, চার্জার ভ‍্যান ও মানুষ হাটা চলাচল করছে ইত্যাদি
আমি আমার মামার বাড়িতে ঘরতে যাওয়ার সময় সুন্দর একটি গ্রামের প্রাকৃতিক দৃশ্যের পিকচার তুলে আমি আপনাদের মাঝে পোষ্ট করলাম গ্রামটির নাম সরকেল ডাঙ্গা এবং এই গ্রামটিতে সুন্দর প্রাকৃতিক ও সকাল বেলায় পাখির কিচিরমিচির ডাক এবং পাখির কিচিরমিচির ডাকে সকালে ঘুম ভেঙ্গে যায় এবং যে দিকে তাগায় সেই দিকে শুধু সবুজ গাছপালা আর সবুজ ফসলের ক্ষেত এবং আমার মামার বাড়ির পিছন দিয়ে সুন্দর একটি ছোট খাল চলে গিয়েছে এবং আমি যে পিকচার দুইটি আপনাদের মাঝে পোষ্ট করলাম এবং প্রথম পিকচারটির বর্নণা এবং সেখানে দেখা যাচ্ছে সুন্দর একটি পিচের তৈরী রাস্তা এবং রাস্তার এবং রাস্তার ডান পাশে একটি বড় বাঁশ ঝড় এবং তার পাশে বিভিন্ন ধরনের গাছপালা এবং বাম পাশে অনেক গুলো কলা গাছের বাগান এবং প্রথম সেখানে একটি লোক একটি গরু নিয়ে সামনে দিকে যাচ্ছে এবং কলা গাছের বাগানের ভিতরে একটি তাল গাছ একটি লম্বা মেহগনি গাছ দেখা যাচ্ছে এবং রাস্তার কিছুটা দূরে এবং লোক চার্জার ভ‍্যান নিয়ে সামনে দিকে আসতেছে এবং মামার বাড়ির পিছনে খালের দৃশ্য এবং এই খালটি এঁকেবেকে অনেক দূরে চলে গিয়েছে এবং খালের ভিতরে অনেক গুলো পানি দেখা যাচ্ছে এবং খালের দুই পাশে উচু মাটির তৈরী ভেড়ি এবং দুই পাশে ভেড়িতে অনেক গুলো গাছ পালায় ভরা
এই পিকচারটিতে দেখা যাচ্ছে সুন্দর একটি মসজিদের দৃশ্য এবং এই মসজিদটি ঢাকায় অবস্থিত স্থান নীউ মারর্কটের পিছনের রাস্তা ঢাকা 1205 এবং মসজিদটির নাম বায়তুল আমান জামে মসজিদ এবং সেখানে দেখা যাচ্ছে মসজিদের সামনে সুন্দর একটি বড় মাঠ এবং মাঠের ভিতরে সুন্দর একটি বড় লম্বা গুম্বুজের পিলিয়ার এবং এই পিলিয়ারটিতে সাদা রঙ্গের টাইস বসানো এবং পিলিয়ারের মাথার উপরে অনেক গুলো মাইক দেখা যাচ্ছে এবং পিলিয়ারের চারিপাশে কিছু লোক বিভিন্ন ধরনের জিনিস বিক্রায় করছে এবং সেখানে কয়েকটি লোক দাঁড়িয়ে আছে বা কেনাকাটা করছে এবং পিলিয়ারটির পাশ দিয়ে দুইটা শিড়ি দুই পাশ দিয়ে চলে গিয়েছে এবং শিড়ির পাশ দিয়ে সুন্দর সুন্দর ফুল গাছ লাগানো এবং শিড়ির নিচে পাশে কয়েকটি দোকান দেখা যাচ্ছে এবং এই শিড়ি দিয়ে ভিতরে প্রবেশ করতে হয় এবং শিড়ির পাশে এবং সুন্দর করে ওযু খানা করা দেখা যাচ্ছে এবং সেখানে অনেক গুলো লোক ওযু করছে এবং সেখানে ট‍্যাপ দ্বারা ওযু করতে হয় এবং ট‍্যাপ গুলো দেওয়ালের সঙ্গে লাগানো এবং সেই দেওয়ালটিতে লাল রঙ্গের টাইস লাগানো এবং মসজিদের ভিতরের দৃশ্য এবং সেখানে দেখা যাচ্ছে ভিতরে অনেক গুলো মানুষ কিছু লোক নামাজ পড়ছে আর কিছু লোক নামাজ পড়ে বাইরের দিয়ে যাচ্ছে এবং মসজিদের ছাদের সঙ্গে লাগানো অনেক গুলো সিলিং ফ‍্যান দেখা যাচ্ছে এবং পাশের অন্য একটি ঘরের ভিতরে মহিলাদের নামাজের ব‍্যাবস্থা করা আছে এবং সেখানে অনেক গুলো মহিলা মিলে নামাজ আদায় করে
আমার প্রিয় গ্রামের সুন্দর একটি প্রাকৃতিক দৃশ‍্যের পিকচার তুলে আপনাদের মাঝে পোষ্ট করলাম এবং গ্রামটির সুন্দর একটি নাম আছে গ্রামটির নাম হলো ধুলিহর বালুই গাছা পূর্ব পাড়া বায়তুল আকসা জামে মসজিদ ও মাদ্রাসা প্রাঙ্গণে এবং আমি ও আমার বন্ধুরা মিলে ব‍্যাট মিন্টন খেলা করতে গিয়ে আমি আপনাকে মাঝে একটি খেলার একটি সুন্দর দৃশ্যের পিকচার তুলে পোষ্ট করলাম এবং পিকচারটিতে দেখা যাচ্ছে সুন্দর একটি ছোট মাঠ এবং মাঠের ভিতরে মধ্যে খান দিয়ে সুন্দর একটি লাল রঙ্গের জাল ঝুলানো এবং এবং এই খেলাটির নিয়ম জালের দুই পাশে দুই জন করে চার জন খেলা করার নিয়ম এবং একক জনের হাতে একটি করে ব‍্যাট থাকবে এবং তাদের সঙ্গে থাকবে একটি ফুল এবং ফুলটি জালের উপর দিয়ে এক পাশ থেকে অন্য পাশে ব‍্যাঠ দিয়ে মারতে থাকবে এবং যায় পাশে ফুলটি পড়ে যাবে সেই ফুলটি আউট বলে গননা করা হবে এবং তার একটি পয়েন্ট হবে এবং আমি যে পিকচারটি আপনাদের মাঝে পোষ্ট করলাম সেই পিকচারটিতে দেখা যাচ্ছে একটি মাঠে চারজন চারটি ব‍্যাট নিয়ে খেলা করছে এবং তাদের বাম পাশ দিয়ে সুন্দর একটি রাস্তা চলে গিয়েছে এবং রাস্তা পাশে একটি মসজিদ এবং মসজিদটি এক তালা অবশিষ্ট এবং মসজিদ পাশে কয়েকটি লোহার তৈরি জানালা দেখা যাচ্ছে এবং তার পূর্ব পাশে একটি ইটের গাথনি করা ঘর দেখা যাচ্ছে এবং ঘরটি টালি দিয়ে ছাউনি করা এবং তার সামনে একটি ছোট দোকান ঘর দেখা যাচ্ছে এবং মসজিদের পাশে এবং ঘরের পাশে এবং রাস্তার দুই পাশ দিয়ে বিভিন্ন ধরনের গাছ পালা দেখা যাচ্ছে এবং মাঠের মধ্যে আরও বাচ্চার খেলা করছে
শুভ বিকাল বন্ধুরা আমি আপনাদের মাঝে নতো একটি ফলের দোকানের পিকচার তুলে আপনাদের মাঝে পোষ্ট করলাম ঠিকানা সাতক্ষীরা লাবনী হলের পাশে নীউ মারর্কেট মোড় এবং সেখানে দেখা যাচ্ছে সুন্দর একটি ফলের দোকান এবং দোকানের সামনে বিভিন্ন ধরনের ফল সাজানো এবং প্রথম অনেক গুলো আপেল সাজানো তার পাশে সাজানো আছে বিস্কুট ও তার পাশে অনেক গুলো মালটা ফল ও সেখানে অনেক গুলো বেদনা দেখা যাচ্ছে এবং বেদনার পাশে কয়েকটি বতলে জুস রাখা দেখা যাচ্ছে এবং দোকানের সামনে উপরে অনেক গুলো বিভিন্ন ধরনের চিপস ও বাচ্চাদের খাবার ঝুলানো দেখা যাচ্ছে এবং দোকানের সামনে দুইজন লোক দাঁড়িয়ে আছে এবং ফাম পাশে একটি লোক দাড়ানো এবং দোকানের সামনে দিয়ে সুন্দর একটি ড্রেন চলে গিয়েছে এবং তার পাশ দিয়ে সুন্দর একটি রাস্তা এবং তার পাশে আরও একটি ফলের দোকান দেখা যাচ্ছে এবং দোকানের সামনে দিয়ে যে রাস্তাটি চলে গিয়েছে এবং রাস্তা দিয়ে বাই সাইকেল, মটরসাইকেল, চার্জার ভ‍্যান, ইজিবাইক এবং মানুষ পায়ে হেঁটে চলাচল করছে ইত্যাদি