写真

শুভ সকাল। আমাদের জীবনে সবারই কোনো না কোনা জিনিস ভালো লেগে থাকে। ভালো লাগার আর একটি নাম হলো আমাদের প্রাকৃতীক সৌন্দর্য। সবার জীবনে আনন্দের ছোয়া লাগিয়ে দেয় প্রাকৃতীক সৌন্দর্য। যার ফলে এর মনোভাব বোঝার চেষ্টা করে। উপরের ছবিটিতে আপনারা সাধারনত গাছপালা, আকাশ ইত্যাদী দেখতে পাছছেন। এগুলো সবই হলো প্রাকৃতীক সৌন্দর্য। এ দেশের  প্রতিচিত্র অনেক মনোমুগ্ধকর ও আশার অলোর মতো সৌন্দর্যময়। যে গুলো সবার জীবনে এক মহা আনন্দের ছোয়া বার্তা লাগিয়ে দিয়ে যায়। সাধারনত সবাই এই প্রকৃতীর মহা সৌন্দর্য উপভোগ করতে চায়। আমাদের দেশের মতো এ রকম মহা সৌন্দর্য আর কোথা ও আছে বলে আমার মনে পড়ে না। যেগুলো সবাই উপভোগ করে থাকে। আশা করি আমার এই পোষ্টটা সবারই ভালো লাগবে। সবাইকে ধন্যবাদ।
বিশাল নদী, বাংলাদেশ নদী মাতৃক দেশ। উক্ত ছবিতে আপনারা দেখ পাচ্ছেন যে একটি নদী। আমাদের দেশে বিভিন্ন স্থানে ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে অনেক ধরনের নদী,নালা, সমুদ্র ইত্যাদী। নদীগুলো অনেক সুন্দর দেখতে। এ নদীগুলো কখনো রুদ্রমূর্তি ধারন করে। আবার কখনো শান্ত সুন্দর। বর্ষাকাণে নদী পানিতে টইটুম্বুর হয়ে ওঠে। তখন নদীতে মাছ ধরার ধুম পড়ে যায়। নদীর দু ধারে কাশবন, ছোটো ছোটো ঘরগুলোকে কোনো শিল্পীর দুলিতে আঁকা ছবির মতো মনে হয়। লঞ্চ, জাহাজ, পালতোলা নৌকারোহী চলাচল দেখতে অপূর্ব সুন্দর লাগে। নদীর দীনেশ গোধূলির সূর্য অন্ত যায়, তীরের সারি সারি গাছগুলো নিরজা ঘুমিয়ে পড়ে। জেলেদের নৌকাগুলিতে মিটমিট করে আলো জ্বলে। নদী ছাড়াও রয়েছে বিভিন্ন সমূদ্র সৌকত। বাংলাদেশের কক্সবাজারে পৃখিবীর সর্ববৃহৎ সমুদ্র সৈকত। সাগরের নীল ঢেউ আছড়ে পড়ে পাড়ের গায়। ছোট ছোট লাল কাঁকড়াগুলো  গুটি গুটিেপায়ে তীরে ঘেঁষে ঘেঁষে চলে।
 আশা করি আমার পোষ্টটা সবার ভালো লাগবে। সবাইকে ধন্যবাদ।
একটি ছোট বাজার। এখানে সকল প্রকার নৃত্য প্রয়োজনীয় মালামাল পাওয়া যায়। এটি হলো পুরাতন সাতক্ষীরা বাজার। আমাদের জীবনে সবারই কোনো না কোনা জিনিস ভালো লেগে থাকে। ভালো লাগার আর একটি নাম হলো আমাদের প্রাকৃতীক সৌন্দর্য। সবার জীবনে আনন্দের ছোয়া লাগিয়ে দেয় প্রাকৃতীক সৌন্দর্য। যার ফলে এর মনোভাব বোঝার চেষ্টা করে। উপরের ছবিটিতে আপনারা সাধারনত গাছপালা, আকাশ ইত্যাদী দেখতে পাছছেন। এগুলো সবই হলো প্রাকৃতীক সৌন্দর্য। এ দেশের  প্রতিচিত্র অনেক মনোমুগ্ধকর ও আশার অলোর মতো সৌন্দর্যময়। যে গুলো সবার জীবনে এক মহা আনন্দের ছোয়া বার্তা লাগিয়ে দিয়ে যায়। সাধারনত সবাই এই প্রকৃতীর মহা সৌন্দর্য উপভোগ করতে চায়। আমাদের দেশের মতো এ রকম মহা সৌন্দর্য আর কোথা ও আছে বলে আমার মনে পড়ে না। যেগুলো সবাই উপভোগ করে থাকে। আশা করি আমার এই পোষ্টটা সবারই ভালো লাগবে। সবাইকে ধন্যবাদ।
শুভ সকাল। উক্ত ছবিটি হলো একটি গ্রামের ছবি। এ দেশের অতুলনীয় প্রাকৃতিক প্রকৃতি কবিকে চিরকাল মুগ্ধ করেছে।  এই মৌসুমের রৌপ্য বাঙালির রূপটি , বিভিন্ন রঙ, গন্ধ, সুরেলা অনুষ্ঠানগুলিতে আবৃত।  বাংলার নাম প্রকৃতিতে বিচিত্র।  বাঙালি রূপে ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে সৌন্দর্যের বিভিন্ন উপাদান।  এই ছবিতে একটি সবুজ ক্ষেত্র দেখা যায়।  গাছপালার সেই ক্ষেত্রের অভ্যন্তরে দেখা যায়।  রূপের প্রকৃতি দেখে আমাদের দুটি চোখ সংযুক্ত থাকে, মন ভুলে যায়।  প্রাকৃতিক সৌন্দর্য দেখে দুটি চোখ স্নিগ্ধতায় ভরে যায়, অন্তরে প্রশান্তি আসে, মন ভরে যায় এবং মন একটি চিন্তাবিদ হয়।  এই ছবিটি আমার নিজের প্রাণ গ্রাম থেকে সংগ্রহ করা হয়েছে।  আমি আশা করি এই সুন্দর দৃশ্যটি সবার পছন্দ হবে।
শুভ সন্ধ্যা। এই রকম সৌন্দর্য সাধারনত সন্ধ্যার একটু আগা দেখা যায়। অনেক অপূর্ব একটি ছবি। আমদের গ্রাম বাংলায় যেন শিল্পপ্রয়োগ দুলিতে আঁকা কোনো ছবি প্রাকৃতীক দৃশ্য। বাংলার রূপ দেখলে আমাদের মন ভরে যায়। আমাদের জীবনে সবারই কোনো না কোনা জিনিস ভালো লেগে থাকে। ভালো লাগার আর একটি নাম হলো আমাদের প্রাকৃতীক সৌন্দর্য। সবার জীবনে আনন্দের ছোয়া লাগিয়ে দেয় প্রাকৃতীক সৌন্দর্য। যার ফলে এর মনোভাব বোঝার চেষ্টা করে। উপরের ছবিটিতে আপনারা সাধারনত গাছপালা, আকাশ ইত্যাদী দেখতে পাছছেন। এগুলো সবই হলো প্রাকৃতীক সৌন্দর্য। এ দেশের  প্রতিচিত্র অনেক মনোমুগ্ধকর ও আশার অলোর মতো সৌন্দর্যময়। যে গুলো সবার জীবনে এক মহা আনন্দের ছোয়া বার্তা লাগিয়ে দিয়ে যায়। সাধারনত সবাই এই প্রকৃতীর মহা সৌন্দর্য উপভোগ করতে চায়। আমাদের দেশের মতো এ রকম মহা সৌন্দর্য আর কোথা ও আছে বলে আমার মনে পড়ে না। যেগুলো সবাই উপভোগ করে থাকে। আশা করি আমার এই পোষ্টটা সবারই ভালো লাগবে। সবাইকে ধন্যবাদ।