写真

আমি আমাদের মাঠের ধান কাটার একটা অসাধারণ চিত্র তুলে ধরলাম আজকে আমাদের মাঠে নতুন ধান কাটা শুরু হয়েছে এবং আমাদের জমিতে ধান কাটা হচ্ছে নতুন ধান বাসায় নিয়ে যাব এ জন্য জমি থেকে সুন্দর করে কেটে পরিষ্কার পরিছন্নতা করে সুন্দর করে বেধে বাসায় নিয়ে যাওয়ার জন্য প্রথমেই ধান কাটতে হয় তার একটা ছবি আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম আমাদের একটা জমিতে ধান কাটা শুরু হয়েছে এবং আরো কয়েকটা জমিতে ধান এখনো রয়েছে আমরা কয়েকদিনের ভিতরে কাটবো আমাদের মাঠের ধানের ফসল এর অসাধারণ একটা চিত্র আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম এটাই আমাদের মাঠ আমরা এখানে ধানের চাষ করি 12 মাস আমাদের গ্রামের মানুষেরা বিভিন্ন ধরনের জিনিস চাষ করে থাকে গ্রামের মানুষেরা কৃষি সবথেকে বেশি আকৃষ্ট কৃষিকাজে সবথেকে বেশি আকর্ষিত কৃষিকাজ তারা সব থেকে বেশি বোঝে এবং জানে কীভাবে কৃষি কাজ করতে হয় কিভাবে ফসল উৎপাদন করতে হয় সবদিক দিয়ে তাদের অনেক অনেক জ্ঞান রয়েছে তারা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর আমাদের গ্রামে প্রতি মাসে একবার করে এসে কৃষি বিষয়ক আলোচনা করেন কীভাবে ফসল উৎপাদন করতে হবে কিভাবে কীটনাশক ব্যবহার করতে হবে কোন মৌসুমী ফসল কোন ধান রোপন করতে হবে কোন মাসে কোন ফসল উৎপাদন করতে হবে সেসব বিষয় নিয়ে আলোচনা করেন এজন্য গ্রামের কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর এবং গ্রামের মানুষের অনেক অনেক জ্ঞান দিয়ে গিয়েছে তারা তাদের কথা অনুযায়ী আমরা মাঠে ফসল করি এবং প্রচুর পরিমাণে ফল পায় তাতে লাভবান হয় এবং আর্থিক সচ্ছলতা আসে আমাদের আশা করি আপনাদের অনেক অনেক ভালো লাগবে আমাদের মাঠের ধানের ফসল এর অসাধারণ দৃশ্য দেখে এটাই আমাদের স্বপ্ন এটাই আমাদের আশা আমাদের অনেক অনেক কষ্ট অর্জিত এই ফসল আমরা বাসায় নিয়ে যাব এবং আমাদের উদ্দেশ্য সফল করব তিন থেকে চার মাস সময় লাগে এই ফলটা বাসায় নিয়ে যেতে এজন্য অনেক অনেক কষ্ট পরিশ্রম করতে হয় এর পেছনে আমাদের প্রতিনিয়ত পানি দিতে হয় ফলে কীটনাশক দিতে হয় সার দিতে হয় আর বিভিন্ন ধরনের জিনিস দিয়ে ফসল তৈরি করতে হয় এবং সেটা বাসায় নিয়ে গিয়ে সিদ্ধ করে খেতে হয় অনেক কষ্ট করে তবে ফসল আমাদের বাসায় এ যাওয়া হয় আশা করি আপনাদের অনেক অনেক ভালো লাগবে আমাদের মাঠের ফসল এর অসাধারণ চিত্র দেখে সবার অনেক অনেক ভালো ফসল হয়েছে আমাদেরও হয়েছে ভবিষ্যতে আরো ভালো করার চেষ্টা করব এবং আরো সুন্দর সুন্দর ফসল লাগানোর জন্য কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের কাছে আমরা আলোচনা করব তাদের পরামর্শ অনুযায়ী আমরা আরো ভালো ভালো ফসল উৎপাদন করবে বাংলাদেশ কৃষকের মানোন্নয়ন করব দেশের অর্থনৈতিক স্বচ্ছলতা এবং চাহিদা পূরণ করব আমাদের ধান আমাদের চাউল সারা বিশ্বের মানুষের কাছে পরিচিত করে দেবো এটাই আমাদের আশা আমরা সব সময় নতুন নতুন কিছু তৈরি করার চেষ্টা করি আমাদের মাঠে প্রায় 500 একরের বেশি জমিতে ধান রোপন করা হয়েছে সেগুলো আমরা কয়েকদিনের ভিতরে অল্প অল্প করে কেটে পরিষ্কার করব কিছু কিছু জমিতে কাটা শুরু হয়ে গিয়েছে সব মিলিয়ে আমাদের মাঠের অসাধারণ ধানক্ষেতের দৃশ্য এবং কিছু গাছ গাছালির চিত্র  তার চিত্র গুলো আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম আমি আশিক ভাই আপনাদের সামনে আমাদের মাঠের কৃষি বিষয়ক কিছু কথা নিয়ে আলোচনা করলাম এবং আমাদের মাঠের ফসল এর দৃশ্য ধান কাটার চিত্র আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম গ্রামের মানুষেরা কৃষিকাজে সবথেকে বেশি নিয়োজিত এবং কৃষি আমাদের প্রাণ কৃষি আমাদের সবকিছুই কৃষি নিয়ে বেঁচে আছি আমরা❤️❤️🇧🇩🇧🇩🇧🇩🇧🇩❤️🇧🇩
শুভ সকাল, সকালবেলায় আমাদের গ্রামের একটা দৃশ্য আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম আপনারা দেখতে পাচ্ছেন রাস্তা দিয়ে অনেকগুলো ফেটে যাচ্ছে সকালে তাদেরকে ছেড়ে দেওয়া হয় তারা বিভিন্ন স্থানে ঘুরে ঘুরে তাদের খাবার সংগ্রহ করে তারা নিজেদের খাবার নিজেরাই সংগ্রহ করে আশা করি আপনাদের অনেক অনেক ভালো লাগবে সকালবেলায় আমাদের গ্রামের কিছু রাজহাঁসের অসাধারণ চিত্র দেখে গ্রামের মহিলারা তারা প্রতিনিয়ত রাজহাঁস লালন-পালন করতে পছন্দ করে রাজাদের অনেক সুন্দর এবং তাদের পরিচিত এবং প্রিয় একটা প্রাণী সেটা গ্রামের মহিলারা বেশি বাড়িতে লালন-পালন করেন আশা করি আপনাদের অনেক অনেক ভালো লাগবে সকালবেলা রাজহাঁসের অসাধারণ একটা চিত্র আমি যখন রাস্তা দিয়ে হেঁটে আসছিলাম তখন দেখি আমার সামনে অনেকগুলো রাজাহাস রাস্তা দিয়ে যাচ্ছে এবং তার এই একটা ছবি আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম খুব সুন্দর একটা মুহূর্ত আমার বাড়িতে দশটা রাজহাঁস লালন পালন করছি আমার নিজের আমি বাড়িতে খামার তৈরি করেছি সেখানে আমি লালন পালন করি বিভিন্ন ধরনের হাঁস-মুরগি তার ভিতরে উল্লেখযোগ্য রাজহাঁস পাতি হাঁস মুরগি সোনালি মুরগি আরও বিভিন্ন ধরনের রয়েছে সেগুলো আমি বাড়িতে লালন পালন করি আশা করি আপনাদের অনেক অনেক ভালো লাগবে আমার বাড়িতে এবং আমাদের গ্রামে রাজহাঁস লালন-পালন করার এবং রাস্তা দিয়ে রাজহাঁস হেঁটে আসার সকাল বেলার একটা অসাধারণ চিত্র আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম গ্রামের মহিলাদের সব থেকে প্রিয় জিনিস এবং সব থেকে প্রিয় প্রাণী যেটা মহিলারা বেশি দেখাশোনা করে থাকে।
আমরা কৃষ্ণচূড়া গাছের নাম শুনেছি। আজ আমরা সে গাছ নিজের চোখে দেখবো তার একটা চিত্র আমাদের সামনে তুলে ধরলাম, এই কৃষ্ণচূড়া গাছ আমাদের স্কুলের সামনেই একটা রয়েছে আমাদের কলেজের সামনে একটা রয়েছে এবং আমাদের বাজারে একটা অবস্থিত মোট তিনটা কৃষ্ণচূড়া গাছ রয়েছে আমাদের ইউনিয়নে সেই তিনটা কৃষ্ণচূড়া গাছের চিত্র আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম যেটা আমি মনে করি সব থেকে সুন্দর গাছ পৃথিবীর ভিতরে কৃষ্ণচূড়া গাছের ফল অত্যন্ত সুন্দর লাল রঙের হয়ে থাকে যখন গাছে ফুল ফোটে তখন সব থেকে বেশি সুন্দর দেখা যায় এবং আমার দেখা সবথেকে দৃষ্টিনন্দন এবং আকর্ষণীয় কৃষ্ণচূড়া গাছের চিত্র আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম আমাদের ইস্কুলের গাছটা অনেক সুন্দর আমাদের বাজারে গাছটাও অনেক সুন্দর আমাদের কলেজের সামনে ও গাছটা অনেক সুন্দর সব মিলিয়ে এই তিনটা কৃষ্ণচূড়া গাছের চিত্র আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম প্রতি বছরে একবার করে গাছের নতুন পাতা ছাড়া এবং নতুন ফুল দেয় সেই সময় দেখতে সবথেকে সুন্দর লাগে আমাদের স্কুলে একদম মেন গেটের সামনে এই কৃষ্ণচূড়া গাছ অবস্থিত আমাদের স্কুলের ছাত্রছাত্রীরা মিলে এই কাজটা আমরা স্থাপন করেছিলাম সেটা আজ অনেক অনেক বড় হয়েছে এবং ইস্কুলের সৌন্দর্য বৃদ্ধি করছে মানুষেরা এই কাজ দেখার জন্য আসে যখন এই গাছে ফুল দেয় তখন বিভিন্ন স্থান থেকে মানুষের সৌন্দর্য প্রকৃতির এবং তার সৌন্দর্য উপভোগ করার জন্য তারা দেখার জন্য আসে আমাদের স্কুলে আমি সেই গাছের দৃশ্য আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম আমাদের লাগানো কৃষ্ণচূড়া গাছের চিত্র আমাদের ইস্কুলে আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরতে পেরে খুবই খুশি এই গাছের নিচে অত্যন্ত সুন্দর পরিবেশ পৃথিবীর সবথেকে সৌন্দর্য আকর্ষিত যে গাছগুলো সব থেকে মেয়েদের বেশি পছন্দ করে এই গাছটার নাম কৃষ্ণচূড়া এবং সেই কৃষ্ণচূড়া গাছের চিত্র আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম
মাটির তৈরি বিভিন্ন ধরনের জিনিস এর চিত্র আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম। মাটির তৈরি জিনিস সব থেকে বেশি প্রিয় গ্রামের মানুষের। গ্রামের মানুষেরা সবথেকে বেশি মাটির তৈরি জিনিস ব্যবহার করে এবং সবথেকে বেশি মাটির তৈরি জিনিস তৈরি করে। আশা করি আপনাদের অনেক অনেক ভালো লাগবে মাটির তৈরি কিছু জিনিস এর অসাধারণ চিত্র দেখে এখানে রয়েছে হাড়ি, কলস ফুলদানি আরও বিভিন্ন ধরনের প্রয়োজনীয় জিনিস এখানে রয়েছে এগুলো তৈরি করে থাকে হিন্দু সম্প্রদায়ের মানুষেরা বেশি অংশ এই মাটির তৈরি জিনিস তারা তৈরি করে থাকে তাদেরকে কুমোর বলা হয় । এভাবে প্রাচীন ঐতিহ্যকে ধরে রেখেছে তারা প্রাচীনকালের মানুষেরা তারা এভাবে বিভিন্ন ধরনের জিনিস তৈরি করত যেগুলো শুধুমাত্র মানুষের এবং তাদের ব্যবহার করার জন্য তৈরি করতো কিন্তু এখন বর্তমানে তারা তৈরি করে বিভিন্ন ধরনের জিনিস ছোট বাচ্চা ছেলে মেয়েদের খেলার জিনিস তৈরি করে থাকে তাদের জন্য তৈরি করে তারা অর্থনৈতিকভাবে লাভবান হচ্ছে এজন্য তারা বিক্রয় করেছেন আশা করি আপনাদের অনেক অনেক ভালো লাগবে আমাদের সাতক্ষীরা জেলার একটা অসাধারণ চিত্র আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম সাতক্ষীরা জেলার সুলতানপুর মাটির তৈরি জিনিসের চিত্র আমাদের সামনে তুলে ধরলাম তারা বাড়িতে বাড়িতে এসব তৈরি করে থাকে এবং মানুষের কাছে বিক্রি করে তারা নিজের বাড়িতে সব ধরনের জিনিস তৈরি করতে সক্ষম এবং অর্থনৈতিকভাবে লাভবান হচ্ছে আশা করি আপনাদের অনেক অনেক ভালো লাগবে মাটি তৈরি কিছু জিনিসের আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরতে পেরে খুবই খুশি হলাম আমি আশিক ভাই আপনাদের সামনে উপস্থাপন করেছি মাটির তৈরি কিছু জিনিস এগুলা প্রাচীন শিল্প
সকালের নাস্তার একটা অসাধারণ চিত্র আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম, আজকের সকালে রুটি আলু ভাজি আর ডিম ভাজি দিয়ে সকালের নাস্তা করেছি তার একটা ছবি আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম। আমরা বাড়িতে নাস্তা তৈরী করে খেতে অনেক অনেক পছন্দ করে তার কারণ হলো বর্তমান সময়ে নক্ ডাউন এর সময় সব হোটেল দোকানপাট বন্ধ থাকে এজন্য সকালে বাড়িতে বিভিন্ন ধরনের নাস্তা তৈরি করে সেগুলো আমরা খেয়ে থাকেন সকালে নাস্তা হিসেবে আজকে সকালে বাড়িতে রুটি আর ডিম ভাজি তৈরি হয়েছে সাথে ছিল খুবই সুস্বাদু অনেক জনপ্রিয় আমাদের গ্রামের মানুষের কাছে অত্যন্ত জনপ্রিয় এবং আশা করি আপনাদের অনেক অনেক ভালো লাগবে আজকে সকালে বাড়িতে আলু ভাজি ডিম ভাজি দিয়ে খাওয়া-দাওয়া করার একটা অসাধারণ চিত্র আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম এটা সকালের নাস্তা হিসেবে খেয়েছি বাড়িতে কারণ বাজারে যাওয়ার কোন পরিস্থিতি নায়  বর্তমানে এজন্য বাড়িতে সবকিছু করতে হয় করোনাভাইরাস এর হাত থেকে রক্ষা পেতে হলে আমাদের সব সময় সর্তকতা অবলম্বন করতে হবে এবং বাড়িতে থাকতে হবে নিরাপদ স্থানে থাকতে হবে আশা করি আপনাদের অনেক অনেক ভালো লাগবে ডিম ভাজি আলু ভাজি আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরতে পেরে খুব আনন্দিত।🤤🤤
শুভ সকাল, সকালবেলায় আমি আমাদের বাড়ির পাশে একটা দোকানে চা বিস্কুট খাওয়ার জন্য এসেছি তার একটি চিত্র আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম শুভ সকালের অসাধারণ চিত্র আমাদের বাংলাদেশব্যাপী আজকের থেকে করুণা ভাইরাসের জন্য লকডাউন দেওয়া হয়েছে এজন্য বাহিরে আমরা যেতে পারছিনা আমাদের গ্রামে আমরা চায়ের দোকানে বসে বসে সকালের নাস্তা করেছি তার একটি চিত্র আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম অত্যন্ত জনপ্রিয় গ্রামের সব মানুষ তারা বিভিন্ন স্থানে যেত কিন্তু নকডাউন দেওয়ার কারণেই আর কোথাও যেতে পারছে না এজন্য সবাইকে আমাদের পরিচিত একটা চায়ের দোকানে বসে বসে চা খাচ্ছে সকালের নাস্তা করছেন কবি সুন্দর চা তৈরি করতে পারে এক কাপ চায়ের দাম বাংলাদেশ টাকা মাত্র 5 টাকা এজন্য গ্রামের পথের মানুষ সকালে চা বিস্কুট কেক কলা রুটি আর বিভিন্ন ধরনের জিনিস খেয়ে থাকে গ্রামের মানুষের কাছে অত্যন্ত জনপ্রিয় চায়ের দোকান সব সময় চা খেতে ভালোবাসে যা মানুষের শরীরে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ আমরা যারা মাঠে-ঘাটে কাজ করে থাকি তাদের জন্য সবথেকে বেশি গুরুত্বপূর্ণ এজন্য আমরা সকালে ঘুম থেকে উঠে চা খেয়ে থাকি আশাকরি আপনাদের অনেক অনেক ভালো লাগবে আজকে সকালে চা দিয়ে নাস্তা করার একটা অসাধারণ চিত্র আমি আপনাদের সামনে উপস্থাপন করতে পেরে খুবই খুশি হলাম আমি আশিক ভাই আজকে সর্বপ্রথম সকালে গ্রামের চায়ের দোকানে বসে চা খাচ্ছি তারই একটা চিত্র আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরতে পেরে খুবই খুশি হলাম গ্রামের প্রতিটি মানুষ এই দোকানে বসে বসে চা খাই এখানে সুন্দর সুন্দর করে লাল চা দুধ চা তৈরি করা হয় খুবই জনপ্রিয় একটা চায়ের দোকানের চিত্র আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম আমাদের গ্রামে অবস্থিত আমার এক বড় ভাইয়ের তৈরি করে
কোন একদিন মাটির ডাঙ্গা গ্রামের বিকাল বেলায় ঘুরতে যাবা বন্ধুদের সঙ্গে একটা ছবি আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম। আমরা মাঝে মাঝে বিভিন্ন স্থানে করতে জাতাম এবং সেখানকার একটা করে ছবি এবং আমাদের ছবি সবাই একসঙ্গে মিলে তুলতাম তারই একটা চিত্র আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম আমরা এখান থেকে পনের থেকে কুড়ি দিন আগে আমরা মাটিয়াডাঙ্গা গ্রামে ঘুরতে গিয়েছিলাম আনন্দ মজা করতে গিয়েছিলাম বিকাল বেলায় তার এই একটা ছবি আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম আমি সোহাগ মুস্তাহিদুর রহমান আর বন্ধু মহাসেন আমরা চারজন বিকালে কোন একদিন ঘুরতে গিয়েছিলাম এবং নদীর ধার দিয়ে হেটে হেটে যাচ্ছিলাম তার একটা ছবি আপনারা দেখতে পাচ্ছেন নদীতে কোনো পানি নেই তবুও নদীর নাম এখনো মানুষের মুখে মুখে রয়েছে জনপ্রিয় হয়ে রয়েছে কারণ এই নদী টা ছিল অনেক বড় একটা নদী যেটা বর্তমান সময়ে মানুষের কাছে খুবই পরিচিত কিন্তু এই নদীতে কোন পানি থাকেনা পানি চলাচল করে না এই নদীর ধার দিয়ে মানুষেরা প্রতিদিন বিকালে আনন্দ ভ্রমনের জন্য যায় আশাকরি আপনাদের অনেক অনেক ভালো লাগবে বন্ধুদের সঙ্গে বিকাল বেলায় আনন্দভ্রমণে করতে যাওয়ার একটা চিত্র অনেক মজা করেছিলাম সেই দিন এবং অনেক দূর পর্যন্ত নদীর ধার দিয়ে চলে গিয়েছিলাম দেখার জন্য বিকালবেলা অসাধারণ প্রকৃতি সব মিলিয়ে অসাধারণ সৌন্দর্য আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরা বিকাল বেলায় বন্ধুদের সঙ্গে আনন্দ ভ্রমনের মজা করার একটা অসাধারণ চিত্র আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম। খুব সুন্দর ছিল দিনগুলো ❤️❤️❤️
নক্ ডাউন এর চতুর্থ দিনের সাতক্ষীরার একটা অসাধারণ চিত্র আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম, ভাইরাস আমার একটা সংক্রান্ত রোগ যেটা মানুষের শরীরে একবার ঢুকে গেলে আক্রান্ত করতে শুরু করেন এবং একজনের শরীর থেকে অন্য আরেকজনের শরীরে চলে যায় খুবই দ্রুত একটা সহায়ক হিসেবে এটা বৈজ্ঞানিকরা ধারণা করছে এজন্য আমাদেরকে সতর্ক থাকতে হবে এবং মাক্স ব্যবহার করতে হবে প্রয়োজনীয় কোন সমস্যা হলে ডাক্তারের কাছে যোগাযোগ করতে হবে আশা করি চিত্রটা দেখে আপনাদের অনেক অনেক ভালো লাগবে সাতক্ষীরা জেলা আজ চতুর্থ দিন লকডাউন দেওয়া হয়েছে অনেক অনেক সুরক্ষিত একটা এলাকা বলা হয় আমাদের সাতক্ষীরা লাগাকে আমাদের সাতক্ষীরাতে এখনো একজন পর্যন্ত কোন করোনার রোগী ধরা পড়িনি তবে আমরা এখনো পর্যন্ত সতর্ক আছি এবং সব সময় সর্তকতা অবলম্বন করি সাতক্ষীরা জেলার মানুষেরা একটু কর্মজীবী মানুষ তারা তাদের কর্ম জীবিকা নির্ভর করার জন্য শহরে যেতে হয় প্রতিনিয়ত তবে সুশৃংখলভাবে নিয়ম মেনে সতেজতা থেকে তারা তাদের জীবন পরিচালনা করছে তার একটা চিত্র আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম আশা করি আপনাদের অনেক অনেক ভালো লাগবে সাতক্ষীরা গোল চক্করের একটা অসাধারণ চিত্র আপনারা দেখতে পাচ্ছেন মানুষেরা সঠিকভাবে এবং একে অপরের  স্পর্শ না নিয়ে চলাফেরা অনুসারে পৃথিবীর সব মানুষই যানবাহন বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে শুধুমাত্র রিকশা-ভ্যান গলা চালু রাখা হয়েছে এক স্থান থেকে অন্য স্থানে যাওয়ার জন্য কোন যানবাহন ট্রাক সব ধরনের জিনিস বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে কারণ সবাই একে অপরের গায়ে এসে পড়েন বাসের ভিতরে এ জন্য বাস বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে সকল প্রকারের কোনো যানবাহন বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে এজন্য ভাইরাস নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব আশা করি আমরা যদি সবাই সচেতন হই তাহলে আমাদের ভিতরে ভাইরাস প্রবেশ করতে পারবে না এবং ভাইরাস দ্রুত নিষ্কাশন করা সম্ভব এজন্য আমরা সবাই সচেতন হোন এবং অন্যকে সচেতন করার চেষ্টা করব সব মিলিয়ে অসাধারণ চিত্র সংগ্রাহকদের একটা অসাধারণ দৃশ্য আমি আপনাদের সাথে তবে অধিকাংশ দোকান বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে প্রয়োজনীয়কিছু দোকান খোলা রাখা হয়েছে যেমন ঔষধের দোকান কয়েকটা মুদিখানার দোকান এই সব দোকানগুলো খোলা রাখা হয়েছে আর হাসপাতালগুলো 24 ঘন্টা খোলা রাখা হয়েছে সব মিলিয়ে অসাধারণ চিত্র আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম আমি আশিক ভাই আপনাদের সামনে উপস্থাপন করছি সাতক্ষীরা জেলা লকডাউন এর  চতুর্থ দিনের একটা দৃশ্য
এখানে যে চিত্রটা আপনারা দেখতে পাচ্ছেন এটা হল এডমিন রউফ দের বাসা তিনি নতুন একটা টয়লেট কর এবং গোসলখানা তৈরি করছেন তারই একটা চিত্র আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরে তিনি নিজের হাতে করে তার প্রয়োজনীয় জিনিস তৈরি করছে খুব সুন্দর করে নিজের হাতে তৈরি করছেন তার ছোটভাই তিনি অনেক সুন্দর একজন মিস্ত্রি এবং অনেক পরিশ্রম করতে পারে খুবই উন্নত ধরনের একজন মিস্ত্রি তিনি বাড়িতে বাড়িতে গিয়ে টাইস লাগিয়ে আসে বিভিন্ন ঘরে বিভিন্ন স্থানে তিনি তার নিজের বাড়িতে টাইস লাগাচ্ছেন তার একটা চিত্র আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরতে পেরে খুবই খুশি হলাম রউফ তিনি তার ছোট ভাইয়ের সঙ্গে সাহায্য সহযোগিতা করছে তার একটা দৃশ্য আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম তার অনেক দিনের ইচ্ছা আজ পূর্ণ হতে যাচ্ছেন তিনি ছোটবেলা থেকে চেয়েছিল আমি একটা গোসল খানা তৈরি করব খুব সুন্দর করে পাকা করে এবং একটা বাথরুম ঘর তৈরি করব তার মনের ইচ্ছা পূরণ হলো আজ তার একটা চিত্র আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম খুব সুন্দর করে কারুকার্য তৈরি করছেন সুন্দর সুন্দর নকশা দিয়ে তৈরি করা হচ্ছে এবং রুমের ভিতরে টাইলস লাগানো হয়েছে এবং বাহিরে খুব সুন্দর করে প্লাস্টার করে দেওয়া হয়েছে ভালো দিয়া অসাধারণ এই মুহুর্তটা আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম দেখতে খুবই সুন্দর লাগছে এবং দুপুর বেলার একটা দৃশ্য আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরতে পেরে খুবই খুশি হলাম তার মনের ইচ্ছা পূরণের অসাধারণ চিত্র আমি আশিক ভাই আপনাদের সামনে উপস্থাপন করলাম
আজ আমি আপনাদের সামনে যে চিত্রটা তুলে ধরবো এটা আমাদের জীবনের একটা স্মৃতি আমরা কখনোই ভুলতে পারবো না আমরা 2019 সালে বিবাহিত এবং অবিবাহিত মধ্যকার ফুটবল টুর্নামেন্টের একটা চিত্র আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম আমরা বৃষ্টির মৌসুমে আমাদের মাঠে ফুটবল খেলা প্রতিযোগিতা করে থাকি আমরা আমাদের গ্রামের বিবাহিত একদল এবং অবিবাহিত যুবক ছেলেরা একদল আমরা প্রতি বছর খেলা করে থাকি তবে দুই হাজার কুড়ি সালে করোনাভাইরাস এর কারণে আমরা খেলা করতে পারিনাই এবং 2019 সালের এই ছবিটা আমি আজ আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম আমাদের জীবনের একটা মহান মূল্যবান স্মৃতি যেটা আমি কখনোই ভুলতে পারবো না আমরা অবিবাহিতরা এই খেলায় বিজয়ী হয়ে ছিলাম আমরা এই খেলার চ্যাম্পিয়ন হয়েছিলাম আমাদেরকে 11000 টাকা চ্যাম্পিয়ন পুরস্কার দেওয়া হয়েছিল অত্যন্ত সুন্দর এবং অনেক জ্যাম পূর্ণ এই খেলার আয়োজন করা হয়েছিল আমরা এই খেলার 11 জন প্লেয়ার খেলেছিলাম এবং গ্রামের প্রতিটি মানুষ আমাদেরকে অনেক অনেক সাপোর্ট করেছিল আমরা তাদের সাপোর্ট দেয়ার বেশি ভালো খেলা করেছিলাম আর বেশি সুনাম অর্জন করেছিলাম আমি দুইটা গোল করেছিলাম এবং আমার দুইটা গোল করে আমরা বিজয় অর্জন করেছি আশাকরি আপনাদের অনেক অনেক ভালো লাগবে বৃষ্টির দিনে আমাদের কাদামাটির মাঠে সবাই একসঙ্গে কাদামাটি মেয়েকে আনন্দ-বিনোদন করে মজা করে ফুটবল খেলার আয়োজন করেছিলাম গ্রামবাসীর সবাইকে অনেক অনেক আনন্দ পেয়েছিল গ্রামের প্রতিটা মানুষ নারী-পুরুষ সবাই আমাদের এ খেলা দেখার জন্য এসেছিল বিভিন্ন দূর থেকে আমাদের এ খেলা উপভোগ করার জন্য এসেছিল সব মিলিয়ে আমাদের চিত্র আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম আমাদের গ্রামের যুবক ছেলেরা এবং গ্রামের বিবাহিত বড় ভাইদের চিত্র আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম আমরা সবাই মিলেমিশে এই খেলায় প্রতিযোগিতা হিসেবে অংশগ্রহণ করেছিলাম আজ আমার হঠাৎ করে আমাদের সেই পুরাতন স্মৃতি মনে পড়ে গেল আজ আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম জীবনের স্মৃতি গুলো কখনো ভুলে যাওয়ার নয় যতদিন আমরা বেঁচে থাকব ততদিন এই স্মৃতি আমাদের মাঝে বেঁচে থাকবে আশা করি আমি আশিক ভাই আপনাদের সামনে অনেক সুন্দর একটা স্মৃতি ফুটবল খেলার দৃশ্য আপনাদের সামনে উপস্থাপন করলাম অনেক অনেক মুহূর্তটা ছিল ওই দিনগুলো এখন খুব মিস করি এবং ভবিষ্যতে আমরা এমনই খেলা করে থাকব এবং খুবই সুন্দর সুন্দর খেলা উপহার দেবো মানুষদের আনন্দ বিনোদন দেওয়ার জন্য আমরা এ বছর খেলার আয়োজন করবো যদি ভালো সময় যায় আমাদের এই খেলায় সার্বিক ব্যাবস্থাপনায় ছিল এবং ইয়ং স্টার যুব সংঘ, কর্তৃক আয়োজিত আমাদের এই খেলা পরিচালনা করা হয়েছে এটা আমাদের নিজস্ব একটা সংস্থা,
সকালবেলায় বন্ধুরা মিলে ঘর তৈরি করা দেখতে গিয়েছি তারই একটা চিত্র আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম আশা করি আপনাদের অনেক অনেক ভালো লাগবে আজকে সকালবেলায় আমি আশিক ভাই সোহাগ ,রায়হান,  রউফ, রুহুল আমিন ,আর মোস্তাহিদুর রহমান, কয়েকজন বন্ধু মিলে সকালে ঘর তৈরীর কাজ দেখতে গিয়েছিলাম তার একটা ছবি আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরেছে আশাকরি আপনাদের অনেক অনেক ভালো লাগবে সকলের অসাধারণ মুহূর্তটা সবাই বসে বসে কাজ করা দেখছে একজন সদস্য তিনি নতুন ঘর তৈরি করছেন তার ঘরের কাজ দেখার জন্য আমরা গিয়েছিলাম এবং তার একটা চিত্র আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম আমাদের গ্রামের সকল সমস্যার সমাধান করে থাকে আমরা এবং সমাধান করতে সব সময় আমরা প্রস্তুত আমরা চাই আমাদের গ্রামের সকল মানুষ ভালোভাবে বসবাস করুক সুস্থ ভাবে চলাফেরা করুক এবং শান্তিতে মিলেমিশে চলাফেরা করুক এটাই আমাদের দায়িত্ব কর্তব্য আমরা সেই উদ্দেশ্য লক্ষ্য কাজ করি আমাদের গ্রামের সকল পর্যায়ে মানুষের আমরা সমস্যার সমাধান করে থাকে সবশেষে আমি আপনাদের সাথে বলতে চাই আমরা কয়েকজন ভালো বন্ধু রয়েছে তার ভিতরে সোহাগ রায়হান মোস্তাহিদুর রহমান আর রউফ  এই চারজন আমার সব থেকে ভালো বন্ধু এই চারজনের সঙ্গে সবসময় চলাফেরা করি এবং এক সদস্যদের বাসায় গিয়েছে সকালে ঘর কাজ দেখার জন্য তাই একটা চিত্র আমাদের সামনে তুলে ধরলাম সকালে সেখানে গিয়ে একটু আনন্দ বিনোদন করলাম মজা করলাম কল করলাম হালকা নাস্তা করলাম সব মিলিয়ে অসাধারণ চিত্র আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম
আজকে সকালে আমাদের মেশিনের অসাধারণ একটা চিত্র আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম আমি এখন বর্তমানে আমাদের মাঠে আছি আমাদের মাঠে আমি মেশিনের মাধ্যমে ধান ক্ষেতে পানি দিচ্ছি তারই একটা চিত্র আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম এইমাত্র মেশিন টা স্টার্ট করে আমি আর আমার ছোট ভাই দুজন এখন মাঠে ধান খেতে পানি দেওয়ার কাজে ব্যস্ত রয়েছে তার একটা চিত্র আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম খুব সুন্দর একটা চিত্র ছোট্ট একটা মেশিনের মাধ্যমে আমরা প্রায় ছয় একর জমিতে পানি দিয়ে থাকে এবং ফসল উৎপাদন করেছি আমরা নিজেরাই আমি আমার ছোট ভাই দুইজন মিলে আমরা ছয় একর জমিতে ধানের ফসল এবং ধান উৎপাদন করেছি তার এই একটা ছবি আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম এখানে যে মাঠের দৃশ্য দেখতে পাচ্ছেন আমাদের জমি এবং আমরা এই জমিতে ফসল উৎপাদন করেছি আমরা নিজেরাই কষ্ট পরিশ্রম করে সেই ছোটবেলা থেকে আমরা মাঠে ফসল উৎপাদন করে থাকি আমার অনেক অনেক দিনের অভিজ্ঞতা ফসল উৎপাদন করা আমি ক্লাস সেভেনে যখন পড়ি তখন থেকে আমি মাঠে ফসল উৎপাদন করা শিখেছি আর এই 8,,,9 বছর হয়ে গেল আমি খুব সুন্দর ভাবে ফসল উৎপাদন করা শিখে গিয়েছি আমার বাবার কাছ থেকে কিভাবে ফসল উৎপাদন করতে হয় সেটা আমি শিখেছি এজন্য আমি আর আমার সকালবেলায় আমার ছোট ভাই আমরা দুইজন মাঠে এসে কিভাবে ফসলে পানি দিতে হবে কিভাবে ফাসালে কীটনাশক স্প্রে করতে হবে কিভাবে ফসল কাটতে হবে কিভাবে ফসল রোপণ করতে হবে পরিচর্যা করতে হবে কিভাবে সব বিষয়ে আমি ছোট ভাইকে বলে দিই এবং শেষে ভাবে কাজ করে আশা করি আপনাদের অনেক অনেক ভালো লাগবে সকালবেলা মেশিনের মাধ্যমে ধান খেতে পানি দেওয়ার একটা অসাধারণ চিত্র বাংলাদেশের কৃষকেরা তারা নির্ভরশীল হবে সংশোধনের উপরে বেশি নির্ভরশীল হয়ে থাকে কারণ তারা সারা বছর কত পরিশ্রম করে ধান ফসল উৎপাদন করে এই ফসল তারা কেটে নিয়ে ঘরে রেখে দেয় । ফসল উৎপাদন করতে হলে তিন মাস অপেক্ষা করতে হয়।এবং সেগুলো কিছু বিক্রয় করে তাদের খরচ টাকা তুলতে হয় এবং কীটনাশকের টাকা তুলতে হয়, হয় সব মিলিয়ে ফসল উৎপাদন করার একটা অসাধারণ চিত্র আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম এবং খেতে সকালবেলা পানি দেওয়ার দৃশ্য আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরছি আমি আর আমার ছোট ভাই দুজনে মিলে ফসলের ক্ষেতে পানি দিচ্ছি সকালের এ অসাধারণ মুহূর্ত আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম আমি আমার পরিবারের সব ধরনের কাজ আমি নিজেই করে থাকি এবং মাঠের সকল প্রকারের কাজ আমি নিজেই করে থাকি। পাশাপাশি আপনাদের সাথে থাকি আপনাদের সঙ্গে কাজ করি। আমি আশিক ভাই আমার ফসলের ক্ষেতে পানি দেওয়ার চিত্রটা আপনাদের সামনে উপস্থাপন করলাম❤️❤️❤️
শুভ সকাল, আশা করি আপনারা অনেক অনেক ভালো আছেন আজকের এই অসাধারণ মুহূর্তটা আমি আপনাদের সামনে উপভোগ করছি এখানে যে চিত্র গুলো আপনারা দেখতে চাই সরাসরি সকালে ঘুম থেকে উঠেছি আজ পাঁচটা বেজে কুড়ি মিনিটে রাস্তার দিকে চলে এসেছি এবং প্রকৃতির সৌন্দর্য উপভোগ করছে রাস্তায় বসে বসে এবং ঠান্ডা বাতাস সেগুলা আমার শরীরে লেগে শরীর ঠান্ডা হয়ে যাচ্ছে অত্যন্ত ভাল লাগছে আশা করি আপনাদের অনেক অনেক ভালো লাগবে না সকাল বেলার অসাধারণ কিছু মুহূর্ত আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরতে পেরে খুবই খুশি হলাম এবং আনন্দ-বিনোদন করছি আমি আমার বন্ধু দুজন আমরা এখন রাস্তায় বসে আছি রাস্তা দিয়ে মানুষের দলে দলে বিভিন্ন জায়গায় যাচ্ছেন কাজ করার জন্য কারণ তারা প্রতিদিন সকালে ঘুম থেকে উঠে হাত মুখ ধুয়ে খাওয়া-দাওয়া করে তারা চলে যায় তাদের গন্তব্য স্থানে বিভিন্ন ধরনের কাজ করার জন্য এবং আমাদের গ্রামের সৌন্দর্য দুই ধার দিয়ে সুন্দর সুন্দর গাছ রয়েছে এবং মাঠের পর মাঠ সবুজ ধানক্ষেত সকালবেলায় অসাধারণ মুহূর্ত আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম পাঁচটা বেজে কুড়ি মিনিট এর অসাধারণ একটা চিত্র আমি আপনাদের সামনে উপস্থাপন করছে সবথেকে দ্রুত ঘুম থেকে উঠেছি এবং প্রকৃতির সৌন্দর্য উপভোগ করেছি এটা আমাদের গ্রাম এটাই আমাদের গ্রামের মানুষ এটাই আমাদের মাঠ এটা আমাদের ধানক্ষেত সব মিলিয়ে আমাদের সকালবেলা আমাদের গ্রামের একটা চিত্র মনোরম পরিবেশ নিজের চোখে না দেখলে এটা কখনোই আমরা কল্পনা করতে পারব না এত সুন্দর এই গ্রামের সৌন্দর্য এবং সকলের মুহূর্তটা কতটা ভালো লাগে সেটা একমাত্র যে উপভোগ করে সেই বুঝতে পারে সর্বোচ্চ চেষ্টা করছি সব সময় ভাল ভাবে থাকার এবং সবসময় মানুষের সাথে চলাফেরা করার এবং সকাল বেলার একটা অসাধারণ চিত্র আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরতে পেরে খুবই খুশি এবং আনন্দিত গ্রামের অসাধারণ সৌন্দর্য আপনারা দেখতে পাচ্ছেন এবং আমাদের মাঠের অসাধারণ সৌন্দর্য সোনালী ধান ক্ষেত সবুজ শ্যামল
গতকালকে আমরা গ্রামের যুবক ছেলেরা মিলে একটা প্রজেক্টর এর খেলা দেখানোর আয়োজন করেছিলাম এবং আমরা গ্রামের যুবক ছেলেরা সবাই একত্রিত হয়ে আমরা বাশ গুলো এক স্থান থেকে অন্য স্থানে নিয়ে যাচ্ছিলাম তার একটা চিত্র আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরেছে গতকালকে আমরা প্রতিটা মুহূর্ত আনন্দ-বিনোদন করেছি এবং প্রতিটা মুহূর্তই স্মরণীয় হয়ে থাকবে কারণ গ্রামের যুবক ছেলেরা মিলে সবাই একত্রিত হয়ে আমরা যে কাজগুলো করি সেটা আমাদেরস্মৃতি হয়ে সারা জীবন বেঁচে থাকে গতকালকের এই অসাধারণ মুহূর্তটা আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম আমরা সবাই একত্রিত হয়ে কিভাবে প্রজেক্টর মানুষের মাঝে খেলা দেখাবো সেই সব বিষয় এবং সেইসব কাজগুলো আমরা করেছিলাম আপনারা এখানে দেখতে পাচ্ছেন আমাদের গ্রামের ছোট ছেলেরা রয়েছে আমরা রয়েছি বড়রা রয়েছে সবাই মিলে আমরা একত্রিত হয়ে কাজ করেছিলাম সেটা আমাদের জন্য অনেক ভালো হয়েছে এবং অনেক সফল হয়েছে আমরা গত কালকে কাজ করতে পেরে আজকের সফল হয়েছে এবং সরাসরি প্রজেক্টরের মাধ্যমে আমরা খেলা দেখতে পেরেছি গতকালকে কাজের একটা অসাধারণ চিত্র আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম আমাদের সঙ্গে রয়েছে সোহাগ আরো ছোট ছোট ভাইয়েরা সঙ্গে রয়েছে আমরা সবাই মিলে এই কাজগুলো করতে পেরে খুবই খুশি হলাম এবং সবথেকে বেশি খুশি হয়েছে আমাদের গ্রামের ছোট ছেলেরা তারা সবথেকে বেশি খুশি হয়েছে আমি আপনাদের সামনে উপস্থাপন করতে পেরে অনেক অনেক খুশি এবং আনন্দিত হলাম কারন আমি সবাইকে নিয়ে চলতে চায় এবং সবাইকে নিয়ে একসঙ্গে কাজ করতে চাই খুবই সুন্দর একটা মুহূর্ত আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম সবাই একত্রিত হয়ে কাজ করছে তার একটা চিত্র আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরতে পেরে খুবই খুশি হলাম, আশিক ভাই আপনাদের সামনে উপস্থাপন করছি,,
শুভ সকাল, আজকের সকাল বেলায় আমি আশিক ভাই সোহাগ মুস্তাহিদুর রহমান আর রউফ আমরা মোট চারজন মিলে আজকে এক সদস্যদের বাসায় গিয়েছিলাম তারা নতুন ঘর তৈরি করছে ওই সদস্যের নাম মোঃ রুহুল আমিন তিনি তার বাড়িতে আজকে নতুন একটা ঘর তৈরি করার জন্য এবং ঘরের সিঁড়ি তৈরি করছে আমরা সেখানে গিয়েছিলাম দেখার জন্য প্রদর্শন করতে কিভাবে ঘর তৈরি করেছে সেটা আমরা দেখতে গিয়েছিলাম আজকে সকালে তাড়ি একটা চিত্র আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম তিনি অনেক কষ্ট পরিশ্রম করছে আপনারা দেখতে পাচ্ছেন বাংলাদেশ রিলিজ গেঞ্জি টি-শার্ট গায়ে দেওয়া রয়েছে তিনি অত্যন্ত কষ্ট পরিশ্রম করে তাদের ঘর তৈরি করার কাজে সাহায্য করছে তারই একটা ছবি আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম আমরা সকালে তাদের বাসায় গিয়ে বসে বসে দেখছিলাম এবং আনন্দ উপভোগ করছিলাম কিভাবে ঘর তৈরি করছেন কত সুন্দর দেখা যাচ্ছে এবং আমরা তাদেরকে সাহায্য করছিলাম যে ঘর কিভাবে করলে ভালো হয় কিভাবে করলে মজবুত হয় সেসব বিষয় নিয়ে আমরা বসে বসে আলোচনা করছিলাম তার এই একটা ছবি আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম আশা করি আপনাদের অনেক অনেক ভালো লাগবে রুহুল আমিন সদস্যদের বাসায় গিয়ে ঘর তৈরি করার দৃশ্য দেখা আজকের সকালে তার একটা চিত্র আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম আমাদের গ্রামের মানুষেরা তারা তাদের জীবনের শেষ রক্তবিন্দু দিয়েও পরিশ্রম করে তাদের ছোটবেলার কষ্ট ও পরিশ্রমের টাকা দিয়ে উপার্জিত তারা ঘর তৈরি করেছে তারই একটা চিত্র আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম আশা করি এগুলা দেখে আপনাদের অনেক অনেক ভালো লাগবে আমাদের গ্রামে এখন বর্তমানে কমবেশি সবাই নতুন ঘর তৈরি করছে এবং সবাই অনেক আনন্দে বিনোদনে দিন কাটাচ্ছে তবে আমি এখনো নতুন ঘর তৈরি করতে পারেনি তবে ভবিষ্যতে করব আমার ইচ্ছা আছে আশা করি আমার ইচ্ছা পূরণ হবে এবং সকলের মুহূর্তটা আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম একজন সদস্য দের বাসায় গিয়ে ঘর তৈরীর দৃশ্য  আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম।সোহাগ দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে ঘর তৈরি দৃশ্য দেখছে,,
আজকে আমরা আমাদের গ্রামের যুবক ছেলেরা সবাই একত্রিত হয়ে আমরা একটা প্রজেক্টরে খেলা দেখানোর জন্য আয়োজন করেছি তার একটা চিত্র আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম আমাদের গ্রামে একটা কমিটি রয়েছে যুবক ছেলেদের মধ্যে ওই কমিটির নাম হচ্ছে ইয়ংস্টার যুব সংঘ নামে পরিচিত আমাদের গ্রামের মানুষের কাছে এবং আমরা ঐ কমিটির মধ্যে দিয়ে একটা প্রজেক্টর কিনেছিলাম আজকে আমরা সবাইকে খেলা দেখানোর জন্য খুব সুন্দর করে সাদা একটা পদ্মা তৈরি করেছি তার একটা চিত্র আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম আজকের সন্ধ্যা বেলা থেকেই আমরা পদ্মায় খেলা দেখানোর ব্যবস্থা করব আমাদের গ্রামের যুবক ছেলেরা সবাই একত্রিত হয়ে আমরা অনেকদিন ধরে এই পরিকল্পনা করেছি আজকে আমাদের পরিকল্পনা সফল হতে চলেছে তারই একটা চিত্র আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম আমাদের গ্রামের যুবক ছেলেদের সার্বিক ব্যবস্থাপনায় এবং গ্রামের বয়স্ক মানুষদের সার্বিক ব্যবস্থাপনায় নারী-পুরুষ সবাই আমাদেরকে খেলা দেখার কাজে সাহায্য সহযোগিতা করেছে আমরা তাদের সাহায্য সহযোগিতায় আমরা আজ সফল হয়েছি এবং সফল হতে যাচ্ছে আজকের সন্ধ্যাবেলায় আমরা পরিপূর্ণ ভাবে সফল হয়ে যাব আজকে সন্ধ্যাবেলা আমরা প্রজেক্টরের মাধ্যমে সবাইকে সরাসরি খেলা দেখাবো তার একটা মুহূর্ত আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরব আশা করি আপনাদের অনেক অনেক ভালো লাগবে আজকে আমরা সারাদিন খেলা দেখানোর জন্য ব্যবস্থা করেছি এই সাদা পর্দা তৈরি করেছি বা স্কুটি দিয়ে খুব সুন্দর করে আমরা একটা পরিবেশ সৃষ্টি করেছি তার একটা চিত্র আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরা আশাকরি অসাধারণ মুহূর্ত আপনাদের অনেক অনেক ভালো লাগবে আমাদের সঙ্গে ব্যবস্থাপনা ছিল এডমিন সোহাগ, রহমান ,রুহুল আমিন, কামাল ,এবাদুল ,ইয়াসিন, মুস্তাকিম ,শাহিনুর , মিলন , মাসুদ রানা, গ্রামের অনেক ছোট ছেলেরা আমাদের সাহায্য সহযোগিতা করেছিল,মহাসিন,আরো অনেকেই আমাদের এই প্রজেক্টরে খেলা দেখানো কাজের ব্যবস্থা করে দিয়েছেন এবং আমি সরাসরি সেখানে উপস্থিত ছিলাম এবং আমি অনেক কষ্ট পরিশ্রম করেছে তাদের সঙ্গে সব মিলিয়ে আমাদের এই অসাধারণ চিত্র আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরতে পেরে খুবই খুশি হলাম প্রজেক্টরে খেলা দেখানো কিছু চিত্র এবং কষ্ট অসাধারণ মুহূর্ত আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরতে পেরে অনেক অনেক খুশি এবং আনন্দে এডমিন রউফ তিনি অনেক কষ্ট পরিশ্রম করছে তারই একটা দৃশ্য আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম আমি আশিক ভাই আপনাদের সামনে উপস্থাপন করছি
বিকাল বেলায় গ্রামের ছোট ছেলে মেয়েদের কে নিয়ে একটু আনন্দ-বিনোদন করছি তার একটা চিত্র আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম আশা করি আপনাদের অনেক অনেক ভালো লাগবে আপনারা এখানে দেখতে পাচ্ছেন আমাদের গ্রামের সকল ছোট ছেলেমেয়েরা তারা সবাই আজকে বিকালে আনন্দ বিনোদনের জন্য রাস্তায় চলে এসেছে এবং তারা সবাই একসঙ্গে মিলিয়ে বড় একটা ঘুড়ি তৈরি করেছে এটা তারা আকাশে উড়ানোর জন্য সবাই একসঙ্গে ব্যস্ত হয়ে বসে আছে তার একটা চিত্র আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম আশা করি আপনাদের অনেক অনেক ভালো লাগবে গ্রামের বাচ্চা ছেলে মেয়েদের আনন্দ বিনোদনের একটা চিত্র এভাবে তারা প্রতিনিয়ত আনন্দ-বিনোদন করছে আজকে আমি বিকাল বেলায় তাদের সঙ্গে এসে আনন্দ-বিনোদন করছে তারা অনেক খুশি হয়েছে আমাকে পেয়ে এবং আমি তাদেরকে একটা বড় ঘুড়ি তৈরি করে দিয়েছি সেটা আকাশে উড়া এবং সবাই অনেক আনন্দ বিনোদন করছে আমি আজকে সবথেকে বেশি খুশি হয়েছি কারণ আজকে হঠাৎ করে দুপুরবেলায় ভাত খেয়ে আমি না ঘুমিয়ে আমাদের গ্রামের ছেলে মেয়েদেরকে দেখে একটা রাস্তার ধারে সুন্দর একটা স্থানে তাদেরকে নিয়ে একটু আনন্দ বিনোদন করছে এবং মন ভালো রাখার জন্য এবং শরীর সুস্থ রাখার জন্য আমাদের একটু আনন্দ বিনোদনের প্রয়োজন রয়েছে খুব সুন্দর এই চিত্রটা আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম বিকাল বেলার একটা মুহূর্ত গ্রামের বাচ্চা ছেলে মেয়েদের কে নিয়ে সবাই একসঙ্গে মিলে আনন্দ বিনোদনের একটা মুহূর্ত আপনারা এখানে দেখতে পাচ্ছেন আমি আশিক ভাই আপনাদের সামনে উপস্থাপন করছি এবং আমাদের গ্রামের ছেলেরা মেয়েরা সবাই বসে আছে এবং আমাকে তারা অনেক অনেক ভালোবাসে আমি তাদেরকে অনেক অনেক ভালোবাসি এবং তাদেরকে আমি বিভিন্ন ধরনের খাবার কিনে দিয়ে বিভিন্ন ধরনের জিনিস কিনে দেয় তাদের প্রয়োজনীয় আমি সাহায্য সহযোগিতা করে থাকে যতটুক সম্ভব খুব সুন্দর চিত্র আমাদের সামনে তুলে ধরলাম বিকাল বেলার একটা সবথেকে আনন্দের মুহূর্ত
আজকে মামা ভাগ্নের একটা অসাধারণ চিত্র আমাদের সামনে তুলে ধরলাম, আমি আশিক ভাই এবং আমার দুই ভাগ্নে আমরা সন্ধ্যাবেলায় রাস্তার ধারে দাঁড়িয়ে ছবি তুলছি তার একটা চিত্র আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরেছে আমার বড় আপুর বড় ছেলে আর ছোট আপুর বড় ছেলে মোট তিনজন আমার আপন ভাগ্নে আমরা অনেক অনেক আনন্দ বিনোদন করি আমাদের বাড়িতে এসেছে তারা আনন্দ বিনোদনের জন্য এবং ঘুরতে এসেছে ঘুরতে এসে আমরা বিকালে একটু রাস্তার দিকে গিয়েছিলাম আনন্দ বিনোদনের জন্য মামা ভাগ্নে করতে পারি একটা চিত্র আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম সন্ধ্যাবেলায় দেখতে পাচ্ছেন আমাদের রাস্তার ধারে দাঁড়িয়ে একটা ছবি তুলছি পিছনে অনেক সুন্দর সুন্দর প্রাকৃতিক সৌন্দর্য দেখা যাচ্ছে সবমিলিয়ে মামা-ভাগ্নির অসাধারণ চিত্র আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরতে পারে অনেক অনেক খুশি হলাম আমাদের বাড়িতে তারা দুইবার করে ঘুরতে আসেন এবং আমাদের বাড়ি চট্টগ্রাম জেলার আর নরসিংদী জেলায় এজন্য অনেক দূর হয়ে যাওয়ার কারণে তারা বছরে দুইবার করে ঘুরতে আসে এবং অনেকদিন করে আমাদের বাসায় থাকে অনেক আনন্দ বিনোদন করি সব মিলিয়ে অসাধারণ মুহূর্ত আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরতে পেরে অনেক অনেক খুশি এবং আনন্দিত আমার ভাগ্নে দুইটা এখনো ছোট তারা স্কুলে লেখাপড়া করে অত্যন্ত সুন্দর দেখতে পাচ্ছেন আমরা তিনজন একসঙ্গে দাড়িঁয়ে আছি তার একটা মুহূর্ত আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম স্মৃতি হিসেবে থাকবে সারা জীবন এবং এটা আমি কখনোই ভুলতে পারবো না মামা ভাগ্নেরে অসাধারণ মুহূর্তটা আমরা অনেক অনেক আনন্দ মজা করেছি দিনগুলো এবং খুবই ভালো লেগেছে সব একসঙ্গে মিলে আনন্দ বিনোদন করাটা মজাই আলাদা এজন্য মামা ভাগ্নে সবথেকে বেশি আনন্দ মজা পায় একসঙ্গে হলে তার একটা বাস্তব চিত্র আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম অসাধারণ দৃশ্য আমার ভাগ্নের নাম ইমন হোসেন এবং আরেকটা ভাগ্নের নাম তাসিন হোসেন, খুব সুন্দর দেখা যাচ্ছে অসাধারণ সন্ধ্যাবেলার বিকালে রাস্তা আনন্দ ভ্রমনের একটা মুহূর্ত এটা আমাদের গ্রামের রাস্তা
সাতক্ষীরা শিক্ষামন্ত্রণালয় একটা চিত্র আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম এখানে আপনারা দেখতে পাচ্ছেন সাতক্ষীরা শিক্ষা মন্ত্রণালয় এখান থেকে সাতক্ষীরা শিক্ষা স্কুল-কলেজ-মাদ্রাসার নিয়ন্ত্রণ করা হয় এই মন্ত্রণালয়ের থেকে সকল কার্যক্রম অনুষ্ঠিত হয় আশা করি আপনাদের অনেক অনেক ভালবাসবে সাতক্ষীরা জেলার কেন্দ্রীয় শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের একটি অসাধারণ চিত্র আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরতে পেরে অনেক অনেক খুশি এবং আনন্দে আমার বড় চাচার ছেলে এই শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের প্রধান অফিসার নিয়োগ হয়েছে এবং প্রধান অফিসার হিসেবে চাকরি পেয়েছে এজন্য আমি শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের চিত্র আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম তিনি খুবই মেধাবী অনেক ট্যালেন্ট অনেক শিক্ষিত তার মেধা দক্ষতা কাজে লাগিয়ে তিনি অনেক উচ্চপদে একটা চাকরি স্থান পেয়েছে আশা করি আপনাদের অনেক অনেক ভালো লাগবে সাতক্ষীরা জেলার ভিতরে অনেক অনেক স্কুল-কলেজ-মাদ্রাসা রয়েছে সবগুলো নিয়ন্ত্রণ করার দায়িত্ব শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের প্রতিটা জেলায় একটা করে কেন্দ্রীয় শিক্ষা মন্ত্রণালয় রয়েছে এটা আমাদের সাতক্ষীরা প্রধান কার্যালয়ের একটা চিত্র আমাদের সামনে তুলে ধরলাম 10 তলা বিশিষ্ট শিক্ষামন্ত্রণালয় চিত্র আমাদের সামনে তুলে ধরলাম সাতক্ষীরা শহরের উপরে অবস্থিত সাতক্ষীরা শহর এর সর্বোচ্চ বড় বিল্ডিং এবং এই বিল্ডিঙে সিসি ক্যামেরা দ্বারা নিয়ন্ত্রিত এবং শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত এয়ারকন্ডিশন সিস্টেম সব মিলিয়ে শিক্ষামন্ত্রণালয় অসাধারণ চিত্রসমূহ সরকারিভাবে শিক্ষা মন্ত্রণালয় পরিচালনা করা হয় এবং সরকারের সকল বিধি-বিধান মেনে পরিচালনা করার দায়িত্ব এবং কর্তব্য আশা করি আপনাদের অনেক অনেক ভালো লাগবে সাতক্ষীরা শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের একটি অসাধারণ চিত্র শিক্ষা মন্ত্রণালয় বিল্ডিং এর সামনের সুন্দর সুন্দর ফুল গাছ লাগানো রয়েছে
খুব সুন্দর একটা ঝুলন্ত সিঁড়ির চিত্র আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম ঝুলন্ত সিঁড়ি তৈরি করা হয়েছে বাংলাদেশের সাতক্ষীরা জেলার সুন্দরবনের ভিতর দিয়ে মানুষের চলাচলের জন্য গাছ কেটে কেটে খুব সুন্দর করে মানুষের হাঁটা-চলা পথ তৈরি করা হয়েছে তার একটা চিত্র আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম আশা করি আপনাদের অনেক অনেক ভালো লাগবে এই অসাধারণ আজব একটা সিঁড়ির চিত্র এবং আজব একটা ব্রিজের দৃশ্য আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম এটা অনেক অদ্ভুত যেটা আমার দেখা জীবনের সর্বপ্রথম এবং সুন্দরময় একটা জিনিস আমি বাংলাদেশের সুন্দরবন এলাকা ভ্রমণ করতে গিয়েছিলাম সুন্দরবন আমাদের সাতক্ষীরা জেলার ভিতরে কিছু অংশ জুড়ে অবস্থিত এবং খুলনা জেলার এবং খুলনা বিভাগের ভিতর অবস্থিত প্রতিদিন হাজার হাজার পর্যটক সুন্দরবন ভ্রমণ করতে যায় সুন্দরবনের ভেতরে রয়েছে অনেক সুন্দর একটা পার্ক আছে পার্কের রয়েছে বিভিন্ন ধরনের প্রাণী বিভিন্ন ধরনের পাখি গাছগাছালি সবথেকে বেশি আকর্ষণীয় যে চিত্রটা সেটা হলো এই ঝুলন্ত সিঁড়ি  তৈরি করা হয়েছে তারই একটা দৃশ্য আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম প্রতিদিন হাজার হাজার মানুষ এই অসাধারণ দৃশ্য দেখার জন্য যায় এবং সেখানে টিকিটের ব্যবস্থা করা হয়েছে পার্কের ভিতরে ঢুকতে হলে 20 টাকা দিয়ে প্রবেশ মূল্য দিতে হবে এবং পার্কের গাড়ি পার্কিংয়ের সুবিধা রয়েছে এবং নৌকায় করে যেতে হয় এজন্য মানুষেরা আর গাড়ি নিয়ে যাওয়ার সুযোগ হয় না তবুও একজন গাড়ি নিয়ে যায় আশা করি আপনাদের অনেক অনেক ভালো লাগবে সুন্দরবন এলাকার এবং সুন্দর বনের ভিতর একটা পার্কের ভিতর ঝুলন্ত সিঁড়ির চিত্র আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরতে পেরে অনেক অনেক খুশি দড়ি দিয়ে খুব সুন্দর করে সেগুলো ঝুলিয়ে রাখা হয়েছে বড় বড় গাছের তৈরি এটা মানুষের হাঁটার জন্য খুবই সুন্দর করে তৈরি করা হয়েছে অত্যন্ত মজবুত এবং জনপ্রিয় আমি এই সিঁড়ির উপর দিয়ে হেঁটে বিভিন্ন স্থানে ঘুরেছি বাংলাদেশের সুন্দরবন এলাকার একটা অসাধারণ চিত্র আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম দুই ধার দিয়ে খুব সুন্দর সুন্দর গাছ লাগানো রয়েছে এবং প্রকৃতির সৌন্দর্য সুন্দরবনের ভিতরের একটা চিত্র আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম মানুষেরা অনেক কষ্ট পরিশ্রম করে এটা তৈরি করেছে

動画

Bangladesh,satkhira
03:30

ブログ