写真

আপনাদের মাঝে আমি একটি পার্কের দৃশ্য তুলে ধরছি এ পার্কের ভিতর দেখা যাচ্ছে খুবই সুন্দর রাস্তা তৈরি করা হচ্ছে এবং রাস্তার ধারে দেখা যাচ্ছে একটি পুকুর আছে পুকুর পাড় বাঁধানো আছে খুব সুন্দর করে এবং এই পারে রয়েছে অসংখ্য গাছপালা খুবই সুন্দর গাছগুলো সারি সারি লাগানো আছে এবং দেখা যাচ্ছে এই সূর্যের আলো আকাশ থেকে উঁকি দিয়ে গাছপালা ছিন্ন করে মাটিতে এসে পড়ছে এই দৃশ্যটি সত্যি অনেক ভালো লাগছে আর এই ছবিটি তোলা হয়েছে বাংলাদেশ কুষ্টিয়া জেলার মন্টু মিয়ার বাগান বাড়ি বাড়ি আর এই পার্কের ভেতর দেখা যাচ্ছে খুবই সুন্দর দৃশ্য গাছপালা বিভিন্ন পশু পাখির সম্বন্ধে একটি মানুষের বিনোদনের জন্য তৈরি করা হয়েছে এবং এখানে প্রতিদিন বিভিন্ন জেলা থেকে বিভিন্ন মাছ আলোচনা এবং এসে এখানে খুবই আনন্দ করে থাকে এবং ঘোরাঘুরি করে থাকে এমন এই ছবিটি মত সত্যবাদী একজন লোক সাইকেল চালাচ্ছে এর ভিতরে প্রতিদিন এই ভিতরে কোথাও কোনো অসুবিধা হয়েছে কি এজন্য সে সাইকেল নিয়ে এত একটি এরিয়া সাইকেল এর মাধ্যমে রাউন্ড দিয়ে থাকে আর এই পার্কের ভেতর দৃষ্টিশক্তি অনেক ভালো লাগছে
এই ছবিটির মাধ্যমে আমি দেখাতে সক্ষম হচ্ছি বাংলাদেশের অসংখ্য পাহাড় পর্বত রয়েছে এবং এই ছবিটি তোলা হয়েছে পার্বত্য চট্টগ্রাম অঞ্চল থেকে এবং পার্বত্য চট্টগ্রাম অঞ্চলে অনেক সাগর মহাসাগর রয়েছে এবং এই সাগর পাড়ে গড়ে উঠেছে সুন্দর পাহাড় পর্বত এবং এই পাহাড় পর্বতের দৃশ্যটি অনেক ভালো লাগে দেখা যাচ্ছে সাগরের পানির ঢেউ গুলো পাহাড়ে আছে এসে পড়ছে এবং রাতের বেলায় দেখা যাচ্ছে চাঁদের আলো জোসনা দিচ্ছে গাছপালাগুলো চিকচিক করছে সত্যি অনেক ভালো লাগছে ছবিটি দেখে বাংলাদেশের পার্বত্য চট্টগ্রাম অঞ্চলে অসংখ্য পাহাড় পর্বত থেকে এই পানি গুলো ঝরনা পানি গুলো সাগরে এসে পড়ে এবং এটি সত্যি সত্যি অনেক ভালো লাগে আর এই ছবিটি মানুষকে মুগ্ধ করে তুলছে কারণেই পাহাড় পর্বত এবং সাগর-মহাসাগর এই রাত্রিবেলা আকাশের চাঁদ চাঁদনী রাত সবকিছু ভালো না আর এই প্রাকৃতিক পরিবেশ এর সকল যেতে ভালো লাগে এজন্য বাংলাদেশের অসংখ্য মানুষ আছে বিভিন্ন জেলা থেকে প্রতিবছর এই ভ্রমণ করার জন্য এই পার্বত্য চট্টগ্রাম অঞ্চলে যায় গিয়ে তারা এই প্রাকৃতিক পরিবেশ দেখে দেখে মুগ্ধ হয়ে যায় সত্যি অসাধারন একটি ছবি আমি আপনাদের মাঝে তুলে ধরলাম
বাংলাদেশ একটি নদীমাতৃক দেশ এদেশের অসংখ্য ছোট-বড় নদী রয়েছে এবং এই নদীগুলো মানুষজন পারাবার হওয়ার জন্য বিভিন্নভাবে নৌকা ব্যবহার করে থাকে কারণ নদীর এপারে ওপারে অর্জন বসবাস করে থাকে ঘরবাড়ি তৈরি করে এখানে আমাদের ছবি দেখা যাচ্ছে যে বাংলাদেশ সাতক্ষীরা জেলার ইছামতি নদী পার হচ্ছে একটি ডিঙ্গি নৌকার মাধ্যমে এবং দেখা যাচ্ছে এই নৌকার ভিতরে রয়েছে বিশাল বড় একটি প্রাইভেট কার গাড়ি আর রয়েছে অনেকগুলো মানুষ একসাথে এই নৌকা মাধ্যমে নদী পার হয়েছে এভাবে দেখা যাচ্ছে প্রতিদিন বিভিন্ন মানুষের নদী পারাপার হয় এই নৌকার মাধ্যমে কারণ এপার ওপারে অবশ্যই মানুষ বসবাস করে এবং প্রয়োজনের তাগিদে এপার ওপারে গিয়ে থাকে এবং তাদের একমাত্র এই নদী পার হবার একমাত্র উপায় হল এই ডিঙ্গি নৌকার মাধ্যমে তারা নদী পারাপার হয়ে থাকে আজকে একটি সুন্দর চিত্র তুলে ধরতে সাতক্ষীরা জেলা নদীয়া জেলার সবচেয়ে বড় একটি নদী এবং এই নদীর ওপারে দুই পাড়ে লোক বসবাস করে থাকে এজন্য প্রতিদিন বিভিন্ন মালামাল এবং মাঠে যাতায়াত করে থাকে এপার থেকে ওপারে এবং তারা এই নৌকার মাধ্যমে পারাপার হয় আর এই নৌকা চালিয়ে নৌকার মাঝি অর্থহীন কাম করে এবং সে তার বেকারত্ব দূর করতে পারছে এবং রক্ত দিয়ে সে ভালো স্বাবলম্বী হয়েছে
এখানে একটি সুন্দর ছবি আমি তুলে ধরছি আর এই ছবিটি হলো একটি সমুদ্রের ছবি ছবিটি তোলা হয়েছে বাংলাদেশ কক্সবাজার সমুদ্র সৈকত থেকে এবং এই কক্সবাজারে অবস্থান করছে বাংলাদেশের পটুয়াখালী জেলা এবং পটুয়াখালী জেলা সমুদ্রসৈকতে একটি দৃশ্য খুবই ভালো লাগছে কারণ দেখা হচ্ছে সমুদ্রের বড় ঢেউ এবং এই ঢেউয়ের পানি গুলো দেখা যাচ্ছে সমুদ্র তে আসছে এসে পড়ছে এবং এই দৃশ্যটি সত্যি অনেক ভালো লাগছে এখন সন্ধ্যা ডুবে রাত হবে এবং এই সূর্য তখন ডুবে যাচ্ছে দেখা যাচ্ছে আকাশে শুধু একটি লাল হয়ে যাচ্ছে এবং সে লাল আলো দিচ্ছে এই পৃথিবীতে সত্যি অনেক ভাবার বিষয় এবং অনেক ভালো লাগা একটি বিষয় এবং গাছপালাগুলো সত্যি ভাল লাগছে সমুদ্রসৈকতে পানিগুলো ছিটকে এসে পড়ছে এ দৃশ্যটি অনেক ভালো লাগছে এর জন্য বাংলাদেশের পটুয়াখালী জেলা সমুদ্র সৈকত বাংলাদেশের ঐতিহ্য বিদেশ থেকে মানুষজন এই ঐতিহ্য দেখার জন্য ছুটে আসে
আপনাদের মাঝে আমি একটি ঘুড়ি উৎসবের ছবি তুলে ধরছি আর এই ছবিটি তোলা হয়েছে বাংলাদেশ রাজশাহী জেলার পদ্মা নদীর পাড় থেকে কারণেই পদ্মা নদী পার্টি বিশাল বড় এবং এখানে প্রতিদিন বিভিন্ন দেশ থেকে এবং বাংলাদেশের বিভিন্ন জেলা থেকে মানুষজন এই পদ্মা নদীতে ঘুরতে যায় এবং তারা এই পদ্মা নদী বিশাল সৈকতে তারা এই উৎসব পালন করে থাকে বিভিন্ন প্রকার ঘুড়ি ওড়াতে থাকে দেখা যাচ্ছে যে এখানে মানুষ ঘুড়ি , মাছ ঘুড়ি, পেলেন ঘুড়ি, চিল ঘুড়ি, লাভ ঘুড়ি, বিভিন্ন পশু পাখি ঘুড়ি, তৈরি করে আকাশে বাতাসে পোড়ানো হচ্ছে এই দৃশ্যটি সত্যি ভাল লাগছে কারন এই আকাশকে বিভিন্ন রঙে ছেঁয়ে আছে এবং এখানে অনেক মানুষ এই গুরই প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করেছে এবং তারা এই ঘড়িগুলো উড়িয়ে অনেক আনন্দ পাচ্ছে এবং খুবই সুন্দরভাবে দেখা যাচ্ছে প্রাকৃতিক পরিবেশ এই পদ্মা নদীর পাড়ে এবং এই পদ্মা নদীতে প্রতিবছর বিভিন্ন দেশ ভ্রমণ করতে আসে এবং তারা এই দৃশ্যগুলো ডাকে এবং তারা তাকে এভাবে তারা আনন্দিত হয়ে এই বিভিন্ন প্রকার ঘুড়ি ওড়াতে থাকে এখানে বিশাল বড় বড় ঘুড়ি আকাশে ওড়ানো হচ্ছে এবং আকাশ গুলো বিভিন্ন রঙে ছেঁয়ে আছে এ দৃশ্যটি সত্যি ভাল লাগছে আর এই রাজশাহী জেলার পদ্মা নদীর পাড় সত্যিই খুবই সুন্দর একটি জায়গা এখানে বিভিন্ন দেশ থেকে বিভিন্ন জেলা থেকে মানুষজন ঘুরতে যায় এভাবে ঘুড়ি উৎসব পালন করে থাকে
বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো আমাদের বাংলাদেশেও বিভিন্ন ধর্মের মানুষ বসবাস করে থাকে তার মধ্যে একটি ধর্ম হল সনাতন ধর্ম আর এই সনাতন ধর্মে মানুষ বিভিন্ন দেব-দেবীর পূজা করে থাকে আজকে দেখা যাচ্ছে এখানে একজন অভিজ্ঞ কারিগর সে খুবই কৌশল অবলম্বন করে অনেকগুলো গণেশ ঠাকুরের মূর্তি তৈরি করেছে এবং সামনে আছে গনেশ পূজা গনেশ পূজা পালন করতে হলে হিন্দু সম্প্রদায়ের মানুষকে অবশ্যই গণেশ ঠাকুর তৈরি করতে হবে এবং এগুলো মাটি দিয়ে বিভিন্ন রঙে রাঙিয়ে এই গণেশ ঠাকুর গুলো তৈরি করা হয় এই ছবিটি তোলা হয়েছে বাংলাদেশে ঠাকুরগাঁ জেলা থাকে এবং এই ঠাকুরগা জেলার একটি গ্রামে গণেশ মন্দির আছে এবং এই মন্দিরে পূজা পালন করে থাকে এবং এই লোকটি ঠাকুর গুলো তৈরি করছে বিনিময়ে অর্থ ইনকাম করে থাকে আর সে খু্বই দক্ষতার সাথে এই ঠাকুর গুলো তৈরি করছে আমাদের একটি সুন্দর ঠাকুর তৈরি করার দৃশ্য আমি তুলে ধরলাম এবং হিন্দু মানুষজন এই গনেশ পূজা করে তারা বিশ্বাস করে মৃত্যুর সঙ্গে যাবে এবং দুনিয়াতে ভালো থাকবে এজন্য তাদের গণেশ ঠাকুর কে খুশি করার জন্য তারা সময়মতো গণেশ মূর্তি তৈরি করে গণেশ ঠাকুরের পূজা পালন করে থাকে
আপনাদের মাঝে একটি সুন্দর শিব মন্দিরের ছবি তুলে ধরছি এখানে দেখা যাচ্ছে হিন্দু ধর্মের মার্জন প্রতিদিন শিব ঠাকুরের পূজা করে থাকে এবং এই মন্দির ছোট কিন্তু খুবই উন্নত মানের একটি মন্দির এখানে প্রতিদিন হিন্দু ধর্মে মার্জন হাসেন এবং তারা এই শিব ঠাকুরের পূজা পালন করে থাকে এবং দেখা যাচ্ছে খুবই সুন্দরভাবে অনেক উপরে এই মন্দিরটি তৈরি করা হয়েছে এবং মন্দিরের সামনে দুইটি প্রযুক্তি তৈরি করা আছে এই সেদিন সামনে সত্যি অনেক ভালো লাগছে কারন বাংলাদেশে বিভিন্ন হিন্দু ধর্মের মানুষ তারা এই শিব পূজা করে থাকে এবং শিবের মন্দিরে গিয়ে তাদের এ পূজা পালন করতে হয় এজন্য দেখা যাচ্ছে এই শিব মন্দিরটি খুবই উন্নত ভাবে তৈরি করেছে এমন দুটি অবস্থান করছে বাংলাদেশ কুষ্টিয়া জেলায় এবং এই কুষ্টিয়ার জেলা খুবই উন্নত মানের একটি শিব মন্দির হল এই মন্দিরটি এখানে প্রতিদিন হিন্দু ধর্মের জন আছে এবং তারা এই শিব পূজা পালন করে থাকে এবং এই শিব পূজার মাধ্যমে তারা বিশ্বাস করে মৃত্যুর পর স্বর্গে যাবে আর এই শিব মন্দিরটি খুবই উন্নত মানের হিন্দু ধর্মের জন তৈরি করেছে
হারিয়ে যাচ্ছে গ্রাম-বাংলার সোনালী দিনগুলো এখানে একটি ছবি আমি তুলে ধরছি আর এই ছবিটি হলো গ্রাম বাংলার একটি সুন্দর ছবি ছবিটি মাধ্যমে আমি দেখাতে সক্ষম হয়েছি গ্রাম বাংলার দৃশ্য এটি আঁকাবাঁকা পিচের রাস্তা দিয়ে দেখা যাচ্ছে একটি লোক সাইকেল চালিয়ে যাচ্ছে এবং এই রাস্তার দুই ধারে রয়েছে কৃষিজমি এবং সেই জমিতে চাষ করা হয়েছিল সোনালী ফসল ধান এবং এই ধানগুলো দেখা যাচ্ছে একটু বৃষ্টি হয়েছে এবং এই ধানগুলো সংগ্রহ করে রাস্তার দুই ধার দেওয়া হয়েছে এভাবে দেখা যাচ্ছে গ্রাম-বাংলার অসংখ্য কৃষিজীবী বৃষ্টির কারণে তাদের কৃষি ফসল গুলো এভাবে রাস্তার দুই ধারে শুকাতে দেয় এবং দেখা যাচ্ছে এই রাস্তাদিয়ে কৃষিজমি গুলো আছে এবং কৃষি জমিতে কৃষকরা ধান চাষ করে থাকে এবং এই রাস্তা দিয়ে প্রতিদিন এই গ্রাম অঞ্চলের মানুষ যাতায়াত করে থাকে আর এই রাস্তাটি হল বাংলাদেশ কুষ্টিয়া জেলা শ্রীপুর গ্রাম আর এই গ্রামের অধিকাংশ মানুষ এই রাস্তা দিয়ে যাতায়াত করে থাকে এই আঁকাবাঁকা গ্রাম্য পরিবেশের সুন্দর একটি রাস্তা দিয়ে

動画

Video of a monkey
HD 00:20

ブログ